আগামীকাল ১৭ এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস

সেলিম রেজা,মেহেরপুর প্রতিনিধি:আগামীকাল ১৭ এপ্রিল, ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। স্বাধীনতার পর প্রথম বারের মত কোন আয়োজন ছাড়া মেহেরপুরে মুজিবনগর দিবস পালিত হচ্ছে। সংক্ষিপ্ত আকারে এই দিনটি পালন করবে জেলা প্রশাসন ও মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয়। দিনটি উপলক্ষে মুজিবনগরে সূর্ষোদয়ের সাথে সাথে ৩১বার তোপধ্বনি, পুস্পস্তবক অর্পন ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যে দিয়ে এই দিবসটি পালিত হবে।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সংক্রমণরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার, জন সমগম এড়িয়ে চলা সহ প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সংক্ষিপ্ত আকারে পালিত হবে ১৭ এপ্রিল, ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক আতাউল গনি।

দিবসটি উপলক্ষে ঐতিহাসিক আম্রকানন ওমুজিবনগর স্মৃতিসৌধ ধোয়ামুচা, কমপ্লে· চত্বরসহ চারপাশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নসহ সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জেলা প্রশাসন ও গণপূর্ত বিভাগ।
একাত্তরের এই দিনে মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলা তথা মুজিবনগর আম্রকাননে অস্থায়ী সরকারের শপথ গ্রহণের মধ্য দিয়ে মুক্তিকামী মানুষের মধ্যে সৃষ্টি হয় নবপ্রেরণা। এই প্রেরণা থেকেই নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর অর্জিত হয় স্বাধীনতা।  

এ দিকে ১৭ এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালন উপলক্ষে মুজিবনগরে শুরু হয়েছে ধোয়া মোছার কাজ।

বৃহস্প্রতিবার সকালে মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে মেহেরপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম মুজিবনগর সৃতিসৌধে ধোয়া মোছার কাজ করেন।এবং মুজিবনগরের চারপাশ বর্নিল সাজে সাজানো হয়।
 এ সময় মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উসমান গনী সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
তবে অন্য বারের মত জনসমাগম করে জাকজমক ভাবে পালিত না হলেও করোনা প্রকোটে সল্প পরিসরে পালিত হবে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস।

এদিকে বাইরের জেলার লোকসহ বেশি জনগন মুজিবনগরের ভিতর প্রবেশ না করতে পারে সে লক্ষে মুজিবনগরের দুইটি গেটে থাকবে নিরাপত্তা বাহিনির সদস্যরা।