আমি প্রজ্ঞাবান রাজনৈতিক ব্যক্তি নই তবে যা বুঝি: শেখ মহসীন

https://www.bdcurrentnews24.com/wp-content/uploads/2022/07/ad-1.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিসিএন২৪: সভ্যতার সূত্র ধরেই রাজনৈতিক প্রসার। আবার রাজনীতির প্রসারেই দেশ – মহাদেশ সহ সুশৃংখল জাতি পরিচালিত হচ্ছে। আবার রাজনীতি সভ্যতা কে আজ অলংকৃত করেছে।

সম্প্রতি চাঁদপুরে সরকারের যোগ্য প্রতিনিধি হিসেবে অর্পিত দায়িত্ববোধ থেকে মাননীয় জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিস সরকারি অর্থ- সম্পদ রক্ষায় দল ও সরকারের অতি আপন বেশে থাকা ছদ্দবেশী ও দেশদ্রোহী কিছু কুচক্রী মহলের বিরুদ্ধে নিয়মমাফিক সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানিয়েছিলেন।

অন্যায় ভাবে সরকারি অর্থ তসরুপ হলে জেলা প্রশাসক মহোদয় সরকারের পক্ষে হস্তক্ষেপ করবেন এটাই স্বাভাবিক।

আমার যদি ভুল না হয়, এখানে মন্ত্রী মহোদয় হয়তো দায়ীদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিতে পারতেন। তা, আর হয়ে উঠলো না।
কোন এক গণমাধ্যম সংগঠন থেকে একটা ভিন্ন ধরনের তথ্য দিয়ে ঘোষণা সহ নির্দেশ দেওয়া হলো। যে যেখান থেকে পারেন মন্ত্রী মহোদয়ের পক্ষে ও এই রিপোর্টের বিরুদ্ধে সভা সেমিনার মিছিল-মিটিং ও প্রতিবাদ করে যান।

ব্যানারে প্রিয় নেত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি ও দুইটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের সফল মন্ত্রীর ছবি সাঁটিয়ে শুরু হয়ে গেল মিছিল-মিটিং, সভা সেমিনার ও বিক্ষোভ সমাবেশ। এর সাথ যুক্ত হলো দেশ দ্রোহীতারাও এবং অন্যায় ভাবে সুবিধাভোগীরাও।

ধারণা করা হচ্ছে কেউ কেউ নিজেদের অপরাধ আড়াল করতেই মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের ছবি সামনে এনে ছোট্ট বিষয়টি বড় করে আলোচনায় এনেছেন।

দল,দেশ ও জাতিকে রক্ষায়ও এত সজাগ হয়নি মন্ত্রী মহোদয়ের ছবি ব্যানারে ছাপিয়ে মন্ত্রী মহোদয়ের পক্ষে প্রতিবাদের নামে যে সমস্ত মাতামাতি হয়েছে এই চাঁদপুরে। এমনটি করে মন্ত্রী মহোদয় কে কতটুকু ছোট করেছেন আর কতটুকু বড় করেছেন ভাবুকগণই একমাত্র ভাবতে পারেন।

আমার চিন্তার বিষয় হলো সরকারি কাগজ ছড়াছড়ি হবে আন্তঃমন্ত্রণালয়ে। প্রমাণিত হলে দায়ী ব্যক্তিরা শাস্তি ভোগ করবে না হলে ছাড়া পাবে। এটি কি ভুল বললাম কি না কমেন্টসে জানাবেন।

যেখানে কোথাও মন্ত্রী মহোদয়ের বিরুদ্ধে লেশমাত্র অভিযোগ নেই। মাননীয় মন্ত্রীমহোদয়ের ছবি ছাপিয়ে ব্যানার তৈরি করে কার স্বার্থে এসব মাতামাতি হলো?

যারা অন্তত বাকি ছিল কিছুই বুঝতো না যেমন
রিক্সা শ্রমিক লীগ, ডিঙ্গি মাঝিলীগ পর্যন্ত, দুইবার এর সফল মন্ত্রীর ছবি ছাপিয়ে ব্যানার তৈরি করে মিছিল মিটিং করেছে। তারা কি মনে করেছেন? মন্ত্রীমহোদয় ভুল করেছেন এবং তাকে রক্ষায় সভা সেমিনার করতে হবে?

এসব কর্মযজ্ঞের উস্কানীদানকারী গণমাধ্যম নামধরী অপসংগঠকদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক মন্ত্রী মহোদয়ের পক্ষে তথা সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার পক্ষে সর্বোপরি দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের বিপক্ষে আমি বিচার দাবি করছি।

আমি তেল মারতে জানি না, চামচামিও আমি বুঝিনা!

আমার কাছে মনে হয়েছে
১ | স্বাধীনতার নেতৃত্বদানকারী দলের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক কে সামনে রেখে তাদের অপরাধ আড়াল করার চেষ্টা করছে। এতে তাদের লাভ দলের বদনাম হবে
২ | গোটা বিশ্বকে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো স্বক্ষমতা রাখেন,এ সময়ের বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর নারী নেত্রী,বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রভাবশালী মন্ত্রী পরিষদকে বিতর্কিত করা।
১ | সর্বোপুরি আমরা নদী সিকস্তি এলাকা চাঁদপুরবাসী হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চাঁদপুর কে অনেক দিয়েছেন।
এসব বাড়াবাড়ি করে গোটা বিশ্বকে জানিয়ে চাঁদপুর -হাইমচর ৩ আসন বাসিকে অকৃতজ্ঞ ও কলঙ্কিত করেছেন। তদন্তপূর্বক আমি এরও বিচার দাবি করছি।

আমি আরোও মনে করি,
এতে করে মন্ত্রী মহোদয় কে হেয় করা হয়েছে

এখানে এটা মন্ত্রীমহোদয়ের পার্ট নয়।

যেমনটি করছেন তারা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়ে যে সাবেক সফল পররাষ্ট্রমন্ত্রী,বর্তমান শিক্ষা মন্ত্রী, শেখ হাসিনার ভ্যানগার্ড ডাঃ দীপু মনি এমপি এমন কি ঘটিয়ে বসলো যেখানে ব্যানারের ছবি ছাপিয়ে দেশব্যাপী মিছিল, মিটিংও প্রতিবাদ সমাবেশ করতে হবে?

আরে এটা তো বুঝতে পারত যে তিনি আমাদের চাঁদপুর- হাইমচর ৩ আসনের সাংসদ ও চাঁদপুরের গর্ব। দুটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে সফলভাবে চালিয়েছেন দেশ।। গোটা বাংলাদেশেই আমরা সম্মাননিত ও গৌরবিত।

( সত্যিকারের শেখ হাসিনার সৈনিকগণ বাকিটা দয়া করে বুঝে নিবেন)

এই উস্কানিদাতারা আপন সেজে শেখ হাসিনা সরকারের ও সরকারের প্রভাবশালী মন্ত্রী মহোদয় কে মিডিয়ার মাধ্যমে কি বানাতে চেয়েছিল। একটু গভীরভাবে চিন্তা করলেই পরিষ্কার হয়ে যাবে।

বুঝতে হবে উনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক। নেত্রী ছোট হলে আওয়ামী লীগ ছোট হবে। মন্ত্রিত্ব নিয়ে কেউ প্রশ্ন করলে শেখ হাসিনা সরকারের মন্ত্রিপরিষদের বদনাম হবে।

অথচ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বিশ্ব মানবতার মা” দেশকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে নিয়ে আসতে দিনরাত নিরলস পরিশ্রম করার অগ্রদূত হিসেবে কাজ করে চলেছেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মন্ত্রী পরিষদের সকল সদস্যরাই অত্যন্ত মহাপ্রাজ্ঞবান। যার ফলে আমরা দ্রুতগতিতে স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে এগোচ্ছি।

একজন রিকশাওয়ালা যদি চায়ের দোকানে বসে বলে মন্ত্রীমহোদয় অনেক ভুল করেছেন তাকে রক্ষায় এখন মিছিল করে এসেছি,,,, এটি ইতিহাস হয়ে থাকবে।
(কেউ চ্যালেঞ্জ করতে চাইলে সংরক্ষিত আছে)

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কোন নেতার বা মন্ত্রিপরিষদের কোন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে যদি ষড়যন্ত্র করা হয় সেটা হবে স্বাধীন সার্বভৌম দেশের বিরুদ্ধে।

ভুলে গেলে চলবে না আমাদের মন্ত্রী মহোদয় বঙ্গবন্ধুর উত্তম সহচর ভাষা বীর মরহুম এমএ ওয়াদুদ সাহেবের সুযোগ্য ও সাহসী কন্যা। তিনি অবশ্যই সৎ ও নিষ্ঠাবান সহ কর্মঠ আছেন।
শুধু আপন বেশে সাথে থাকা লুটেরাদের কারণেই আজ ভূলুণ্ঠিত হওয়ার পথে তার সকল অর্জন। জানিনা প্রিয় নেত্রী বুঝবেন কিনা।

যেহেতু দীপু আপা একজন প্রজ্ঞাবান ও পারদর্শী রাজনৈতিক ব্যক্তি সে হিসেবে নিশ্চয়ই আমাকে সরাসরি ডেকে নিয়ে জেরা করে সত্যটা উদঘাটন করবেন।

এসব রিপোর্টগুলো হয়েছে কতিপয় লোকের বিরুদ্ধে আর সেখানে রাষ্ট্রের হীরার টুকরা নিয়ে টানাটানি করে ও মাতামাতি করে রাজধানি ঢাকা শহর পর্যন্ত মিছিল মিটিং করে বিশ্ববাসীকে জানান দিয়েছেন, যে সরকারের উচ্চ মহলের তদন্তে মন্ত্রীমহোদয় ফেঁসে গিয়েছেন আর ফেঁসে গিয়েছেন বলেই এত মাতামাতি।

আমি লেখার মাধ্যমে জানাতে চাই, যিনি বাংলাদেশের ইতিহাসের সাথে যুক্ত হয়ে রত্ন হিসেবে মিশে আছেন।তিনি অবশ্যই বুঝবেন আমার চিন্তা চেতনা কি ছিল।

নিচে কিছু আপনার ছবি সম্বলিত চিন্তাহীন সভা-সেমিনার মিছিলের চিত্র তুলে ধরলাম

পরিশেষে মহান আল্লাহ দেশ ও জাতির কল্যাণে সকলকে বুঝার তৌফিক দান করুক।

তাই বলে থাকি আমি প্রজ্ঞাবান কোন রাজনৈতিক ব্যক্তি নই,,,,, তবে যা, বুঝি!

https://www.bdcurrentnews24.com/wp-content/uploads/2022/07/ad-1.jpg