একজন মানবিক মানুষ শাহাদাত হোসাইন!

হাজীগঞ্জ ব্যুরো: নাম শাহাদাত হোসাইন। চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার ঘনিয়া গ্রামে তার জন্ম। ছোট বেলা থেকেই গ্রাম্য পরিবেশে বেড়ে উঠেছেন। খুব কাছ দেখেছেন এবং উপলদ্ধি করেছেন মানুষের দুঃখ আর কষ্টগুলো। দেখেছেন তার বাবা হাছান আলী পাটওয়ারী কিভাবে এসব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তাই বাবার মৃত্যুর পর তিনিও বাবার দেখানো পথে হাঁটতে শুরু করেন। ভাবতে থাকেন, কিভাবে মানুষদের পাশে থেকে তাদের সেবা করা যায়।


সেই থেকে দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে অর্থনৈতিক ভাবে স্বাবলম্বী করে তুলতে দারিদ্র্যতার সাথে শুরু হয় শাহাদাতের সংগ্রামী পথ চলা। সমাজের সুবিধা বঞ্চিত মানুষের মুখে হাঁসি ফোটাতে ২০১১ সালে কয়েকজন যুবককে নিয়ে তিনি গড়ে তোলেন “প্রভাত” নামক একটি স্বেচ্ছাসেবী সমাজকল্যাণমূলক সংগঠন। তার দক্ষতা, মানবিকতা, সমাজের প্রতি ভালবাসা সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে।


খুব অল্প সময়ে স্থানীয় পর্যায়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠে প্রভাত নামক এই সংগঠন। প্রভাত সমাজকল্যাণ সংস্থার মাধ্যমে জনকল্যাণ মূলক কাজগুলো আন্তরিকতার সাথে সমাজের প্রতিটি স্তরে পৌঁছে দিতে শুরু করে শাহাদাত হোসাইন। তার দানশীলতা, উদারতা, মানুষের প্রতি সহমর্মিতা এবং সমাজের মানুষের প্রতি ভালবাসা তাকে পরিচয় এনে দিয়েছেন “তিনি একজন মানবিক মানুষ”।


সম্প্রতি মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিতে ইতিমধ্যে ‘প্রভাত’ দেশের বিভিন্ন যায়গায় বেশ কিছু হতদরিদ্র মানুষের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, কেউ যেন ঈদের আনন্দ থেকে বাদ না যায় সে লক্ষ্যে ঈদ উপহার পৌঁছে দেয়া হয়েছে।


এ ছাড়াও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে লিফলেট, ব্যানার ও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে জনগণকে প্রতিনিয়ত সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। যা এখনো চলমান রয়েছে। একই সাথে চলছে অপ-চিকিৎসা, মাদক, ইভটিজিং, বাল্য বিবাহ ও নারী-নির্যাতন প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রম। রয়েছে খেলাধুলা ও শিক্ষা বিস্তারসহ ইত্যাদি জনসেবামূলক কার্যক্রম।


প্রভাতের সভাপতি আমির হোসেন রাজু বলেন, বর্তমান সময়ে শাহাদাত হোসাইনের মত মানুষ পাওয়া সত্যিই অকল্পনীয়। তার মানবিকতা, উদারতা, সহমর্মিতা, দানশীলতা, বেকারত্ব মোচনের প্রতি দৃঢ়তা এবং মানবিক কাজগুলো অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের জন্য দৃষ্টান্ত হওয়া উচিৎ বলে মনে করছেন।


এ বিষয়ে শাহাদাত হোসাইনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, বাবার কাছ থেকে শিখেছি। তাই বাবার দেখানো পথ অনুযায়ী চলার চেষ্টা করছি। তিনি জানান, মানুষের পাশে থাকতে এবং সুবিধা বঞ্চিত, দরিদ্র ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারলেই, তিনি মন থেকে তৃপ্তি পান। আর তা অব্যাহৃত রাখতে সবার দোয়া ও ভালোবাসা কামনা করেন তিনি।