করোনার ধকল কাটিয়ে উঠতে আদর্শ হোমিও মেডিকেল কলেজের বহুমুখী পদক্ষেপ

https://www.bdcurrentnews24.com/wp-content/uploads/2022/07/ad-1.jpg

স্টাফ রিপোর্টার।। করোনার ভয়াল থাবায় বিশ্বময় সৃষ্টি হয়েছে ভঙ্গুর তরঙ্গ। পৃথিবীর কোন দেশ বা প্রতিষ্ঠান পর্যন্ত আজও হয়নি স্বাভাবিক। প্রাণপন চেষ্টা চলছে প্রত্যেকে প্রত্যেকের পূর্বের অবস্থায় ফিরে যেতে।
কিন্তু এটি এখনও বিশ্বের উন্নত দেশগুলোও সক্ষম হয়ে ওঠেনি।
এর ফলেই বেশিরভাগ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের যেমনি ভাবে ছাত্রসংখ্যা হ্রাস পেয়েছে তেমনি ভাবে শিক্ষকদেরও নিয়মিত ক্লাসে আসায় ভাটা পড়েছে।
এই কলেজটির বয়স প্রায় সাতাশ বছর।
প্রিন্সিপাল-ভাইস প্রিন্সিপালের অন্তঃদ্বন্দ্বের কারণে কলেজটির বয়স বাড়লেও মর্যাদা বাড়েনি মোটেও।
পাশাপাশি হোমিও বোর্ড থেকে কলেজের উন্নয়নের জন্য প্রায় অর্ধকোটি টাকার ফান্ড পেলেও এই কলেজটির স্থাপনার হয়নি কোনো পরিবর্তন।
কলেজটির বর্তমান অবস্হা এমন যে, প্রাক আমলের গো-ছাগলের আবাসন এর চেয়েও তুচ্ছ।
সরকারের হস্তক্ষেপে সারাদেশে হোমিওপ্যাথির উন্নয়নের জয়জয়কার পরিলক্ষিত হলেও চাঁদপুরের এর প্রতিচ্ছবি ভিন্ন।
কোনো এক অজ্ঞাত কারণে হোমিওপ্যাথি বোর্ডের চেয়ারম্যান ও রেজিস্টারের চোখে ধুলো দিয়ে গায়েবি নির্দেশনা চলছে কলেজটি।
ফলে আজ কলেজটি বিলুপ্তির পথেই দৃশ্যমান।
হোমিও কলেজ অধ্যক্ষের অর্থ কেলেঙ্কারি ও দুর্নীতির বিভিন্ন বিষয়ে দীর্ঘদিনের জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটান কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিস। এর দায়ে অধ্যক্ষ ডাক্তার মোঃ মোজাম্মেল হক পাটোয়ারীকে সাময়ীক বরখাস্ত করে উপাধ্যক্ষ ডাক্তার মোঃ আতাহার আলী কে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে নিযুক্ত করেন।
কলেজটির কয়েকজন প্রভাষক বলেন কলেজের নিজস্ব যে আয় রয়েছে তা দিয়ে কলেজটির পাঁচতলা ভবন সম্পন্ন করা যেতো।
হোমিওপ্যাথি বোর্ডের চেয়ারম্যান ডাক্তার দিলীপ কুমার রায় এক আলোচনা সভার মাধ্যমে তার বক্তব্যে বলেন কলেজের কল্যাণ ফান্ডে প্রায় ষাট লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছি।
প্রায় ২ বছর পূর্বে ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করলেও দন্ধের ফলে
আজ ও তার বাস্তবায়ন মিলেনি।
কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিস এর সভাপতিত্বে হোমিওপ্যাথি বোর্ডের চেয়ারম্যান ডাঃ দিলীপ কুমার রায় ও রেজিস্টার কাম সেক্রেটারি আলহাজ্ব ডাক্তার মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ভবনটির উদ্বোধন শেষে কাজ শুরু করার জন্য এক সপ্তাহের আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন। এই আল্টিমেটামের তোয়াক্কা করেননি অধ্যক্ষ উপাধ্যক্ষ কেউই।
এমতাবস্থায় সামগ্রিক দায় মোচনের সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডাক্তার মোঃ আতাহার আলী।
বিডি কারেন্ট নিউজ ২৪ ‘র এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, আমি সাবেক অধ্যক্ষ মোজাম্মেল হক পাটোয়ারীর হিসাব-নিকাশ যাচাই করবো নাকি তিনি প্রভাষক জসিম বিরুদ্ধে যে মামলা করেছেন সে মামলা চালাবো।
অপরদিকে তিনি আরো বলেন সাবেক অধ্যক্ষ মোজাম্মেল হক পাটোয়ারী বিভিন্ন দপ্তরে আমার নামে নানাহ অভিযোগ করে হয়রানি করে চলেছে ফলে কলেজটির স্বাভাবিক ধারা অব্যাহত রাখতে আমি হিমশিম খাচ্ছি।
সরেজমিন দেখা যায় কলেজটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডাক্তার মোঃ আতাহার আলী শিক্ষকদের সাথে বারংবার সভা করে চলেছেন এবং ছাত্র সংখ্যা বৃদ্ধি ও শিক্ষকদের উপস্থিতি নিয়ে ব্যাস্ত সময় পার করছেন।
এ দিকে কলেজ গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের ২ বারের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবু নঈম দুলাল পাটোয়ারী সার্বিক বিষয়ে গভীর পর্যবেক্ষণ করে চলেছেন। কলেজ গভর্নিং বডির সদস্য হারুন অর রশিদ হাওলাদার বলেন দ্বিতীয়বারের মতো ভবনের নকশা অনুমোদন হয়েছে অচিরেই ভালো একটি সংবাদ পাওয়া যাবে।
ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডাক্তার মোঃ আতাহার আলী বলেন এলাকার অসহায় গরীব রোগীদের কথা চিন্তা করে আমি এসে নিয়মিত আউটডোর চালু করেছি। ছাত্র সংখ্যা বৃদ্ধিতে লিফলেট, পোস্টার, ব্যানার সহ আমরা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যাবো এবং ছাত্র ছাত্রী ভর্তিতে জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবো।

https://www.bdcurrentnews24.com/wp-content/uploads/2022/07/ad-1.jpg