করোনা সন্দেহে চাঁদপুর সদরে চান্দ্রা ইউনিয়নে তিনটি বাড়ি লকডাউন

নিজস্ব প্রতিনিধি: ৭ এপ্রিল রোজ মঙ্গলবার চাঁদপুর সদর উপজেলা ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়েন ২ নং ওয়ার্ডে  ফজল শেখ এর বাড়ি ও দক্ষিণ বালিয়া ৮ নং  ওয়ার্ডের হারুন হাওলাদার এর বাডি ও ৯ নং ওয়ার্ডের খাসের বাড়ি হাবু শেখ এর বাড়ি সহ করোনা সন্দেহে তিনটি বাড়ি।

চাঁদপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক জনাব আওলাদ হোসেন কে সঙ্গে নিয়ে ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খানজাহান আলী কালুপাটোয়ারী লকডাউন দেয়ার সিদ্ধান্ত দেন। সারা বিশ্বে যেভাবে নোবেল করোনা ভাইরাসে মানুষ আতঙ্ক হচ্ছে এর প্রভাব বাংলাদেশে ছড়িয়ে পরছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি তে যখন করোনায় আক্রান্ত মানুষের মৃত্যু যখন হয় তখন ঐ পুরো সিটিতে লকডাউন করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ সেই স্থানটিতে করোনাই আক্রান্ত হয় সেই জায়গা থেকে চাঁদপুর সদর উপজেলা ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়ন 3 ব্যক্তি লকডাউন চলাকালীন থাকা অবস্থায় বাড়িতে চলে আসে। এমন অবস্থায় এলাকার লোকজন তাদেরকে দেখে বলাবলি শুরু করলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী ও ৯ নং ওয়ার্ডের মেম্বার সিদ্দিকুর রহমার বেপারী চাঁদপুর মডেল থানার উপ পরিদর্শক মোহাম্মদ আওলাদ হোসেন উপস্থিতিতে তিনটি বাড়িতে লকডাউন দেওয়ার নির্দেশনা দেন এবং তাদেরকে নিরাপদ স্থানে থাকার জন্য অনুরোধ করেন চেয়ারম্যান খানজাহান আলী কালু পাটোয়ারী বলেন নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা তিন ব্যক্তিকে ঘরে থেকে যেকোনো একটি রুমে ১৪ দিন হোম কোয়ারেনটিনে থাকার জন্য নির্দেশনা দিয়েছে।

এবং তাদেরকে পরিবারের কাছ থেকে দূরত্ব বজায় রাখার জন্য নির্দেশনা দেন এলাকার লোকজনকে সচেতন থাকার নির্দেশ দেন