ঘর থেকে তুলে নিয়ে যুবককে কুপিয়ে গুরুতর জখম, আটক ১

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বসত ঘর থেকে তুলে নিয়ে পিটিয়ে কুপিয়ে মারাত্বক জখম করেছে আব্দুর রশিদ(২৭) নামের এক যুবককে। গুরুতর জখম প্রাপ্ত যুবককে উদ্ধার করে স্থানীয়রা প্রথমে রায়পুর, লক্ষ্মীপুর সরকারি হাসপাতালে নিলে শারিরিক অবস্থার অবনতি দেখে কর্তব্যরত ডাক্তার ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করেন। তার পেটে ও শরিরের বিভিন্ন জায়গায় অনেকগুলো সিলাই সহ মারাত্বক জখমের চিহ্ন রয়েছে।

আহত যুবক উপজেলার বামনী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড সাগরদী গ্রামের মৃত আমিন উল্যার ছেলে।
এ ঘটনায় রায়পুর থানায় (১ মার্চ) রোববার রাতে আহত আব্দুর রশিদের মামা ফজল করিম বাদী হয়ে (১)মনোয়ার হোসেন, (২)মোঃ সুজন সহ অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জনের বিরুদ্ধে একটি এজাহার দায়ের করেন। পুলিশ অভিযোগ পেয়ে রাতেই অভিযুক্ত মনোয়ার হোসেনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। খবর পেয়ে অন্যরা পালিয়ে যায়।

পুলিশ ও এজাহার সূত্রে জানা যায়, বামনী ইউনিয়নের সাগরদী গ্রামের ছলেমান হাফেজের ছেলে অভিযুক্ত মনোয়ার হোসেন(৩৫), মোঃ অহিদ উল্যা পুত্র মোঃ সুজনদের পূর্ব থেকে জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এই বিরোধের জের ধরে বিভিন্ন সময়ে কথা কাটাকাটি হয়, এই সূত্র ধরে গত (১৯শে ফেব্রুয়ারী) রাত অনুমান ১ঘটিকার সময় বিবাদীরা ৬/৭জন পুলিশের পোষাক পরে ও পরিচয় দিয়ে আব্দুর রশিদের বসত ঘর ঘেরাও করলে ঘুমন্ত আব্দুর রশিদ চিৎকার দিয়ে অভিযুক্তদের ডাকাত সন্দেহ করে দরজা খুলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে প্রতিপক্ষরা এলোপাতাড়ী পিটিয়ে, কুপিয়ে মারাত্বক রক্তাক্ত জখম করে। স্থানীয় জনগন এগিয়ে আসলে এবং মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে প্রতিপক্ষরা পালিয়ে যায়। আহত আব্দুর রশিদকে উদ্ধার স্থানীয়রা প্রথমে রায়পুর সরকারি হাসপাতালে পরে লক্ষ্মীপুর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার তার শারিরিক অবস্থার অবনতি দেখে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেপার করেন। সেখানে ১৫দিন চিকিৎসা শেষে ডাক্তার তাকে বাড়ী পাঠায়। রোববার রাতে আহত আব্দুর রশিদ আবার হঠাৎ রক্তক্ষরণজনিত কারণে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে রায়পুর সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
হাসপাতালে কর্তব্যরত ডাক্তার মোনিরা বেগম গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, আহত আব্দুর রশিদের শারিরিক অবস্থা আগেই থেকেই খারাপ ছিল, সিলাই ইঞ্জুরি দেখা দিলে মানবিক কারণে তাকে ভর্তি করানো হয়। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রায়পুর থানার উপ-পরিদর্শক এসআই আরাফাত বলেন, এ বিষয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে, যাহার নাম্বার ০৩, তারিখ: ০১/০৩/২০২০ইং, অভিযুক্ত ১নং আসামী মনোয়ার হোসেনকে আটক করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে, এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।