চাঁদপুরের কচুয়ায় চাঁদার দাবীতে বসত ঘরের দরজায় বেড়া

0
143
প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর কচুয়া উপজেলার ৮ নং কয়দলার দক্ষিণ -পূর্ব পাড়া জয়নাল মিজির ঘর-দরজা, মধ্যযুগীয় বর্বরোচিত কায়দায় ভাংচুর করেছে, কতিপয় চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীরা। জানা যায় হাজী জয়নাল আবেদিনের ছেলে সাখাওয়াত একজন সাউন্ড সিস্টেমস ব্যবসায়ী । তার এ ব্যবসায় প্রতিনিয়ত প্রতিবন্ধকতা ঘটায় চাঁদাবাজ খোরশেদ আলম গংরা। ব্যবসা করতে হলে তাদের মাশোহারা নিয়মিতভাবে দেওয়া লাগবে এমনটিই জানান সাখয়ওয়াত। হাজী জয়নাল ও তার ছোট ভাই দু’জনই প্রবাসী। কিছুদিন পূর্বে তারা দেশে আসে। মামলার বিবরণীতে জানা যায়, সন্ত্রাসী খোরশেদ আলমের নেতৃত্বে কতিপয় চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী হাজী জয়নালের নিকট ৫০০,০০০/টাকা চাঁদা দাবী করে। দিতে অস্বীকার করায় ক্ষিপ্ত হইয়া তারা জয়নালের বসত বাড়ীর বাউন্ডারি ও বসত ঘর-দরজা ভাংচুর ও লুট-পাট করে প্রায় ৩৮৪০০০/ টাকার মেশিনপত্র নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় জয়নাল আবেদিন বাদী হইয়া কচুয়া জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে খোরশেদ আলম সহ ৭ জনকে বিবাদী করে মামলা করেন। আদালত কচুয়া থানার অফিসার ইন্চার্জকে F,I,R পূর্বক আইনগত ব্যবস্থার নির্দেশ দিলে, ৭-১২-২০১৯ অফিসার ইন্চার্জ আসামীদের বিরোদ্বে -১৪৩/৪৪৭/৩২৩/৪২৭/৩৭৯/৩৮৫/৩৮৬/৫০৬ ধারায়। মামলা রজু করেন। মামলা নং ২৬১। ঘটনা ধামা-চাপা দিতে বিভি প্রভাবশালী মহল উঠেপড়ে লেগেছে বলে জানান তিনি। মামলা প্রত্যাহারের হুমকি-ধুমকি চালিয়ে আসছে আসামীগণ। চাঁদাবাজদের দেওয়া বেড়া এখনো বিদ্যমান থাকায় সচেতন মহল, হতচৌকিত ও হত বম্বিত। এ ব্যাপারে পুলিশ সুপারের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকার শান্তি প্রিয় সচেতন মহল।