চাঁদপুরে খাদ্যে অনিয়মের দায়ে ক্যাফে ঝীলসহ ৫টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের মামলা

মো:মুছা তপদার: চাঁদপুরের বিশুদ্ধ খাদ্য নিশ্চিত করার লক্ষ্যে মাঠে নেমেছে ভ্রাম্যমান আদালত। মঙ্গলবার বিকাল ৪ ঘটিকায় চাঁদপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামাল হোসানে নেতৃত্বে চাঁদপুর শহরে এই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়।

এ সময় অস্বাস্থ্যকর খাবার পরিবেশন এবং বিএসটিআই এর লাইসেন্স না থাকায় ক্যাফে ঝীল হোটেল,গ্র্যান্ডসিটি, হোটেল আল আরাফা, হোটেল অ্যারোমা এবং পিং এন পে ডিপার্টমেন্টাল স্টোর এই ৫ প্রতিষ্ঠানকে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য রাখার কারণে, দই সহ বিভিন্ন পন্য বি এস টি আই লাইসেন্স না থাকায় এবং অস্বাস্থ্যকর খাদ্য পরিবেশন করার দায়ে তাদের বিরুদ্ধে বিএসটিআই ২০১৮ আইন অনুযায়ী ২১ ধারায় নিয়মিত মামলা প্রদান করা হয়।

এছাড়া কয়েকটি হোটেল এবং বিভিন্ন খাদ্য প্রতিষ্ঠান, পানীয় ও বস্ত্র প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করে দেওয়া হয়।
সর্বশেষ ভ্রাম্যমান আদালত চাঁদপুর শহরের পিক এন্ড পে সুপার মার্কেটে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে।

পিক এন্ড পে সুপার মার্কেটে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতি পরিলক্ষিত হয়। ক্রয় মূল্য থেকেও অধিক মূল্যে মধু ,চিপস, বিক্রি করার কারণ, ছাড়াও জিনিসপত্র প্যাকেটের গায়ের মূল্য কেটে দিয়ে তারা তাদের ইচ্ছামতো মূল্য নির্ধারণ করে প্যাকেটের গায়ে স্টিকার লাগিয়ে দেওয়ার ফলে এ সকল পণ্যগুলো জব্দ করে ভ্রাম্যমাণ আদালত মামল করেন এবং পিক এন্ড পে সুপার মার্কেটেকে সতর্ক করে দেওয়া হয়।

এসময় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে উপস্থিত ছিলেন বিএসটিআই কুমিল্লা জেলা অফিসের পরিদর্শক মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, বিএসটিআই কুমিল্লা অফিসের ফিল্ড অফিসার মোঃ শহিদুল ইসলাম, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অফিস সহায়ক বিল্লাল হোসেন,সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন মারুফসহ চাঁদপুর মডেল থানা ও আদালতের পুলিশ সদস্য বৃন্দ।