চাঁদপুরে মরহুম ডাঃ ইলিয়াস মিয়াজীর সম্মান মৃত্যুর পরেও বেড়েই চলেছে

মোঃ নবীন ভূঁইয়া || চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০নং সাখুয়া (বর্তমানে লক্ষ্মীপুর) ইউনিয়ন এর নামকরা প্রথিতযশা মরহুম ডাক্তার ইলিয়াস ইহকাল ত্যাগ করেছেন বেশ কয়েক বছর আগেই। তিনি শুধু একজন সু-চিকিৎসক’ই ছিলেন না। তিনি ছিলেন সমাজ সভ্যতা জড়িয়ে এবং রেখে গেছেন অনেক অবদান। এর সাথে রেখে গেছেন তার সু-সন্তানদেরও।

জানাচ্ছিলাম, চাঁদপুর ২৫০ শয্যা সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ল্যাব টেকনোলজিস্ট আলহাজ্ব আব্দুল মালেক মিয়াজীর কথা। যেখানে মৃত্যুর ভয়ে করোনা রোগীর প্রিয় স্বজনরাও কাছে আসে না।সেখানে প্রতিনিয়ত শত শত অসুস্থ রোগীর স্যাম্পল কালেকশন করে চলেছেন আলহাজ্ব আব্দুল মালেক মিয়াজী। এর মাঝে তিনি একবার করোনায় সংক্রমিত হয়ে মৃত্যুর খুব কাছাকাছি থেকে মহান রাব্বুল আলামিনের কৃপায় ফিরে এসেছেন। কিন্তু কে আর বাধ সাজে? আবার লেগে পরেছেন জাতির ক্রান্তিকালে এই দুর্যোগময় সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতে।

আর এই চ্যালেঞ্জ ও মৃত্যুর ঝুঁকি নিয়ে কাজ করা শুধু দায়িত্ব ও কর্তব্যের জন্যই নয়। শুধু বাবা মরহুম ডাঃ ইলিয়াসের উপদেশ মোতাবেক সেই মানবতার টানে আব্দুল মালেক এত ঝুঁকির মাঝেও এখনো স্যাম্পল কালেকশন করে’ই চলেছেন। এজন্যই একথা আজ বাস্তব যে, সু-সন্তান রেখে যাওয়ায় মরহুম ডাঃ ইলিয়াস মিয়াজীর মৃত্যুর পরেও তার সম্মান বেড়েই চলেছে।

চাঁদপুর জেলা অনলাইন প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে, প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রভাষক ডাক্তার শেখ মহসীন সাধুবাদ, মোবারকবাদ, ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা সবগুলোই আলহাজ্ব আব্দুল মালেক মিয়াজীসহ তাঁর সকল সহকর্মীদের জন্য।