চাঁদপুর ও লক্ষীপুর জেলার মোট ৮০ জনকে নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ আনসার বাহিনী

0
539

মাহফুজুর রহমান: সারাদেশে একাধিক ‘সাধারণ আনসার’ সদস্যে লোক নিয়োগ দিচ্ছে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী। নিয়োগকৃত প্রার্থীদের প্রাথমিক যাচাই-বাছাই, শারীরিক পরীক্ষা, লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ শেষে চূড়ান্তভাবে নির্বাচিতদের ১০ সপ্তাহ সাধারণ আনসার প্রশিক্ষণ করানো হবে।

সম্প্রতি এই বাহিনীতে সাধারণ আনসারের শূন্য পদ পূরণের লক্ষ্যে অস্থায়ী ভিত্তিতে শুধু পুরুষ প্রার্থীদের বাছাই করা হচ্ছে বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানা গেছে।

সোমবার (২রা ডিসেম্বর) কুমিল্লা রেঞ্জধীন চাঁদপুর জেলায় ছিলো বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী সাধারণ আনসার নিয়োগের প্রথম ধাপ। এতে চাঁদপুর ও লক্ষীপুর দুই জেলার প্রায় সহস্রাধিক প্রার্থী অংশগ্রহণ করে।

এদিন সকাল থেকেই প্রথম ধাপের প্রাথমিক বাছাই ও শারীরিক পরীক্ষার জন্য চাঁদপুর জেলা কমান্ড্যান্টের কার্যালয়ে আসে চাঁদপুরের আবেদনকৃত ৪৬২ জন ও লক্ষীপুর জেলার ৩৯২ জন প্রার্থী।

প্রার্থীদের যাচাই-বাছাই ও মাপজোক নিচ্ছেন নিয়োগ কমিটির সভাপতি, আনসার ও ভিডিপি ফেনী জেলা কমান্ড্যান্ড মোঃ জানে আলম সুফিয়ান

আবেদনকৃত প্রার্থীদের প্রাথমিক যাচাই-বাছাই, শারীরিক পরীক্ষা, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ শেষে চাঁদপুরের ৫০ ও লক্ষীপুরে ৩০ এই দুই জেলার মোট ৮০ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে বলে এক সাক্ষাতকারে নিয়োগ কমিটির সভাপতি, আনসার ও ভিডিপি ফেনী জেলা কমান্ড্যান্ড মোঃ জানে আলম সুফিয়ান বিডি কারেন্ট নিউজ২৪’কে জানান।

তিনি আরোও জানান, ‘ ফেনী থেকে প্রথমবারের মতো পেশাগত কাজে চাঁদপুরে এসেছি, এখানকার পরিবেশ খুব ভালো লেগেছে। সারাদিন অত্যান্ত সুন্দর, শৃঙ্খল ও শান্তিপূর্ণভাবে নিয়োগের প্রথম ধাপের প্রাথমিক যাচাই-বাছাই ও শারীরিক মাপজোক কার্যক্রম সম্পন্ন করেছি। প্রাথমিক তালিকায় জনকয়েক বাদ গেলেও সিংগভাগ অংশ এখনো রয়েছে যারা লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার পর চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হবে।

সারাদিনের এই নিয়োগ যজ্ঞে আমার সাথে অত্যান্ত আন্তরিকভাবে দায়িত্বরত ছিলেন নোয়াখালীর সহকারী জেলা কমান্ড্যান্ড নুরুল আফসার চৌধুরী, কুমিল্লা চান্দিনার ইউএভিডিও জিয়াউল আবেদীন।

সঠিক ও সুন্দর প্রক্রিয়ায় যোগ্যতার ভিত্তিতে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীতে দক্ষ নেতৃত্ব আসবে এবং নির্বাচিতরা সঠিক দিকনির্দেশনায় আমাদের বাহিনীর ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করে তুলবে বলে আমি আশাবাদী।

বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, ‘সাধারণত প্রার্থীদের ৫০ নম্বরের লিখিত ও ১০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। তবে এবার কত নম্বরের পরীক্ষা নেওয়া হবে, বিষয়টি এখনো প্রক্রিয়াধীন।

লিখিত পরীক্ষায় বিষয় থাকবে চারটি—বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞান। মৌখিক পরীক্ষায় প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, আচরণ, নিজ জেলা, সাধারণ জ্ঞান ইত্যাদি বিষয়ে প্রশ্ন করা হবে।