চাঁদপুর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সুজন কান্তির বিচক্ষণতায় আটক হল মহিলা প্রতারক চক্রের দল

https://www.bdcurrentnews24.com/wp-content/uploads/2022/07/ad-1.jpg

মোঃ আরিফ হোসেন: চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুজন কান্তি বড়ুয়া বিচক্ষণতায় আটক হলো প্রতারক মহিলা চত্রুের একটি দল। জানা যায় প্রতারক এই মহিলা চক্রের দলটি শহরে দীর্ঘ দিন যাবৎ বিভিন্ন লোক জনদেরকে কৌশলে বাসায় ডেকে এনে অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ধারন করে অবৈধভাবে টাকা আদায় করত। টাকা না দিলে এই ছবি ভিডিও তাদের স্ত্রীর কাছে পাঠিয়ে সংসারে অশান্তি সৃষ্টি করত।

এই ধরনের একটি অপরাধের ভিত্তিতে মোঃ মাইনুল ইসলাম (৩৩) অভিযোগ করেন যে, তাহার দোকানের পাশে মোস্তফা নামে এক জনের হার্ডওয়ার দোকান আছে। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মাইনুল ইসলামের সাথে তাহার মনোমালিন্য সৃষ্টি হয়। মনোমালিনের কারনে মোস্তফা, মহিলা প্রতারক চক্রের সদস্যদের সাথে যোগসাজসে মাইনুলের ক্ষতিসাধনের অপচেষ্টায় লিপ্ত থাকে।

গত ৭মে সকাল অনুমান ১০ ঘটিকার সময় মাইনুল চাঁদপুর পৌরসভাস্থ সেবা সিটি সেন্টারে এসির কাজ করাকালীন তাহার ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরে তাসলিমা জাহান জেরিন নামে প্রতারক এক মহিলা ফোন করে।প্রতারক এই সময় তাহার বাসার নষ্ট ফ্রিজ মেরামত করে দেওয়ার জন্য বিভিন্ন ভাবে মাইনুলকে অনুরোধ করে। ঐদিন দুপুরে হাসিনা বেগম ও সাদিয়া বেগম নামে ২ প্রতারক মহিল সেবা সিটি সেন্টারের সামনে গিয়ে তাদের সাথে মাইনুলকে ঘটনাস্থল চাঁদপুর আলিম পাড়া তাদের ভাড়া বাসায় ড্রীম হাউজের ৩য় তলা পূর্ব পার্শ্বের ইউনিটে নিয়া যায়।

কিছুক্ষন মাইনুলকে বসিয়ে রাখার পর দুপুর অনুমান ০১.৩০ ঘটিকার সময় তাসলিমা জাহান জেরিন, হাসিনা বেগম,ও সাদিয়া বেগম, মাইনুলকে পানি পান করার জন্য বারবার বলিলে মাইনুল রোজা রাখায় পানি পান করবে বলে জানান। ঐ সময় আরো কিছু প্রতারক মহিলা ঘটনাস্থল বাসার ভিতর প্রবেশ করে জোর পূর্বক মাইনুলের গায়ের শার্ট ও কোমরের বেল্ট খুলে পরে, আরেক জন মোবাইল ফোনে ছবি ও ভিডিও করে।তাসলিমা জাহান জেরিন বলে যে, মাইনুল তাহার সাথে খারাপ কাজ করেছে, সে জন্য তাকে ৫০,০০০/-টাকা চাঁদা দিতে হবে, নতুবা ধারনকৃত ভিডিও বাদীর স্ত্রীর নিকট পাঠিয়ে পরিবারের অশান্তি সৃষ্টি করিবে। মাইনুল শত অনুরোধ করার পরও প্রতারক মহিলারা টাকা ছাড়া তাকে ছাড়বে না বলিয়া জানায়, চড় থাপ্পর মারিতে থাকে। একপর্যায়ে মাইনুল নিরুপায় হইয়া বিবাদীদের ভয়ে তাহাদেরকে চাঁদা বাবদ বাদীর প্যান্টের পকেটে থাকা নগদ ১০,০০০/- টাকা তাসলিমা জাহান জেরিনের হাতে দিলে প্রতারক মহিলারা তাকে দরজা খুলে বাসা থেকে বাহির করে দেয়।

এই ঘটনায় চাঁদপুর সদর থানার মামলা নং- ২৩,তাং- ১১/০৫/২০২১ইং ধারা- ৩৪২/৩২৩/৩৮৫/৩৮৬/১০৯/৩৪ পেনাল কোডে তাসলিমা জাহান জেরিন, হাসিনা বেগম, সাদিয়া বেগম, মোঃ মোস্তফা ও সন্ধিগ্ধ আসামী কাজল খান, আয়েশা আক্তার নিপা সহ আরো কয়েক জনের নামে আসামী করে মামলা রুজু করা হয়।মামলার তদন্তভার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সুজন কান্তি বড়ুয়া রাত ০৪.ঘটিকা থেকে ০৭ ঘটিকার মধ্যে চাঁদপুর মডেল থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে এই প্রতারক মহিলাদের গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করেন।

https://www.bdcurrentnews24.com/wp-content/uploads/2022/07/ad-1.jpg