চাঁদপুর সরকারী টেকনিক্যাল কলেজে উৎসবমুখর পরিবেশে ‘র‍্যাগ ডে’

মাহফুজুর রহমান: র‌্যাগ ডে’ উৎসবের রঙে বৃহস্পতিবার রঙিন হয়েছে ক্যাম্পাসের সবাই। সাউন্ড স্পিকারের ঢোল ও বাঁশির তালে আত্মহারা ছাত্র-ছাত্রীরা নেচে-গেয়ে, রঙ ছুড়ে, রঙে সেজে গ্রুপ ছবি তুলে উদযাপন করেছে ‘র‌্যাগ ডে’ উৎসবের দিন।

ব্যাপক উৎসাহ, উদ্দীপণা ও আনন্দঘণ পরিবেশেষে চাঁদপুর জেলার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারী টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজে ৪ বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সের ৭ম পর্বের ‘মেকানিক্যাল ও ইলেকট্রিক্যাল’ ডিপার্টমেন্টের র‍্যাগ-ডে অনুষ্ঠান এভাবেই জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হয়। জানা যায়, এটিই এই প্রতিষ্ঠানের প্রথম ইঞ্জিনিয়ারিং ব্যাচ। এই সেশন ২০১৬-১৭ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের প্রথম ভর্তির মাধ্যমেই এখানে ইঞ্জিনিয়ারিং লেখাপড়ার পর্দা উঠেছিলো।

তাই ২৩ জানুয়ারী সকাল থেকেই র‍্যাগ ডে উপলক্ষে ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাস সংলগ্ন আশেপাশের এলাকাজুড়ে বিরাজ করছে উৎসব মুখর পরিবেশ। পুরো ক্যাম্পাসকে রঙিন ও মনোরম পরিবেশে সাজানো হয়। এ উৎসবকে ঘিরে এদিন ইন্সটিটিউটের অডিটোরিয়াম রুমে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কেক কাটার মাধ্যমে ‘র‍্যাগ ডে’র অনানুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন অধ্যক্ষ ইঞ্জিনিয়ার মোঃ সিরাজুল ইসলাম।

এসময় বক্তব্য দেন, প্রতিষ্ঠানটির ইলেক্টিক্যাল বিভাগের প্রধান ইঞ্জিনিয়ার মো. সিকান্দার,বাংলা বিভাগের ইন্সট্রাক্টর মো: শাহজালাল। আরো উপস্থিত ছিলেন মেকানিক্যাল বিভাগের প্রধান ইঞ্জিনিয়ার মোঃ হাসান,গনিত বিভাগের ইন্সটাক্টর মো. মোজাম্মেল মিয়া, আল আমিন, ড্রেস মেকিং ইন্সেটাক্টর জেসমিন সুলতানা,  কম্পিউটার বিভাগের জুনিয়র ইন্সটাক্টর মো.ফয়সাল হোসেন সহ শিক্ষকবৃন্দ।

বক্তারা বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উদ্যেশ্যে সততা,নিষ্ঠা ও দায়িত্ববোধ সম্পর্কে দিকনির্দেশনামূলক নানান পরামর্শ তুলে ধরেন।

এর আগে অনুষ্ঠানের আয়োজক কমিটির অন্যতম শিক্ষার্থী মোঃ সুজন আহমেদ, মোঃ রাকিব হোসেন, মোঃ মেহেরাব হোসেন, মোঃ জাকারিয়া, মোঃ আরাফাত হোসেন সহ নেতৃবৃন্দ শিক্ষকদের মাঝে সকলের পক্ষে শুভেচ্ছা স্মারক তুলে দেন।

ইনস্টিটিউটের মেকানিক্যাল ডিপার্টমেন্টের শিক্ষার্থী মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘দেখতে দেখতে চারটা বছর কোনদিক দিয়ে কেটে গেলো বুঝতেই পারলাম না। আমাদের স্যার ম্যামদের আদর, ভালোবাসা এবং শাসন কখনো ভুলতে পারবো না।’

এখানে আমরা যারা উপস্থিত, আমরা দাবী করতে চাই, আমরাই দেশের উন্নয়নের হাতিয়ার। “সভ্যতার চাকা ঘোরায় যন্ত্র, আমরাই আত্তস্থ করছি এ মন্ত্র”।আজকের এই সভ্যতার চাকা ঘুরিয়েছে যে যন্ত্র। সেই যন্ত্রের চালিকাশক্তি হলো যন্ত্রপ্রকৌশলী” যন্ত্র প্রকৌশলীরা মানে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং। আমার পাশের ভাইরা হয়তো রাগ করে উঠবেন। তবে হ্যাঁ, এর সাথে ঠিক পরিপূরকের মতো গভীরভাবে মিশে আছে কারেন্ট মানে ইলেকটিক্যাল। কারেন্ট না থাকলে কিন্তু আবার যন্ত্রের চাকাও ঘুরে না।

আমি সকলের উদ্দ্যেশ্যে গর্ব করে বলতে চাই, আমরা এই প্রতিষ্ঠানের সেই গর্বিত ছাত্র যারা একসময় গর্ব করে বলবো, আমরা চাঁদপুর টেকনিক্যালের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রতিষ্ঠাতা ছাত্র। হ্যাঁ,আমারই এখানে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের পর্দা উঠিয়ে দিয়েছি। আমাদেরই যুগে যুগে দেশের ভিবিন্ন স্থান থেকে আসা ছাত্ররা মনে রাখবে। আর এই প্রতিষ্ঠানের প্রতিও আমাদের চির দায়বদ্ধতা আছেই। প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে গড়ে তুলবো আমাদের মেধা, হৃদয় ও মনন। আজকের এই দিনে তাই চোখে মৃদ্যু জল আর মুখে হাসি নিয়ে বলি- ‘ শুভ হৌক সকলের পথচলা। শুভেচ্ছা নিরন্তর। সবাই গর্জে ওঠো দেশ গড়ার হাতিয়ার হয়ে।

সভাশেষে র‍্যাগ ডে উপলক্ষ্যে শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গণে আনন্দে-উৎসবে মেতে ওঠে। এসময়  বিদায়ী শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে নাচ, গানের মধ্যে দিয়ে পুরো অডিটোরিয়ামে উৎসবের আমেজ তৈরি হয় এবং সারাদিন বিভিন্ন আয়োজনে ক্যাম্পাস মাতিয়ে রাখেন প্রতিষ্ঠানে এই দুই  বিভাগের শিক্ষার্থীরা।