চালক না পেয়ে অটোবাইক চালিয়ে ত্রাণ পৌঁছে দিলেন খোদ চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক: ব্যাটারিচালিত অটোবাইক পেয়েছেন কিন্তু চালক পাননি। তাই বলে সরকারি ত্রাণ নিয়ে তো বসে থাকলে হবে না। ত্রাণ বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিতে হবে। বিবেকের তাড়নায় যাত্রীর আসনে ত্রাণ নিয়ে ছুটে গেলেন নিজ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের বিভিন্ন বাড়িতে।

শনিবার (৪ঠা এপ্রিল) চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার বাকিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান ইউসুফ পাটোয়ারী নিজেই অটোবাইক চালিয়ে ত্রাণ নিয়ে নেমে পড়লেন নিজ ইউনিয়নের দুঃস্থদের বাড়িতে যাওয়ার জন্যে। করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে এদিন দুপুর পর্যন্ত তিনি অটোবাইক চালিয়ে ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ত্রাণ বিতরণ কাজ শেষ করেন। শনিবার পর্যন্ত বাকিলা ইউনিয়নে প্রথম ধাপের ত্রাণ বিতরণ কাজ শেষ হয়েছে ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বাকিলা ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ৪৫ হাজার লোকের বসবাস। এর প্রায় ৩ শতাধিক পরিবারের মধ্যে গত ক’দিনে ত্রাণ পৌঁছে দেয়া হয়। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১শ’ পরিবার, ব্যক্তি উদ্যোগে ২শ’ ১৫ পরিবার ও অন্যান্য ৮০ মিলিয়ে এ ক’দিন ২শ’ ৯৫টি পরিবার ত্রাণ পেয়েছে। এর বাইরে সরকারি ১০ কেজি চাল, ৩০ কেজি চালসহ অন্য সকল সরকারি ব্যবস্থাপনা চলমান রয়েছে।

মাহফুজুর রহমান ইউসুফ পাটোয়ারী জানান, শনিবার ২নং ওয়ার্ডে বিভিন্ন পরিবারের মধ্যে ত্রাণ পৌঁছে দেয়ার জন্যে পূর্বনির্ধারিত সময় ছিলো। এদিন সকালে ত্রাণ নিয়ে অটোবাইক চালকের অপেক্ষায় অনেকক্ষণ দাঁড়িয়েছিলাম। শেষ পর্যন্ত চালককে না পেয়ে আসনে ত্রাণের ব্যাগগুলো রেখে নিজেই গাড়ি (অটোবাইক) চালিয়ে ২নং ওয়ার্ডে চলে যাই এবং ত্রাণ বিতরণ কাজ শেষ করি।

উল্লেখ্য, প্রবাসী অধ্যুষিত হাজীগঞ্জে এখন পর্যন্ত করোনা সন্দেহে কাউকে পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হয়নি। তবে সরকারি নির্দেশনা না মানার কারণে ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে উপজেলা সদরসহ মফস্বলে সশস্ত্র বাহিনীর পাশাপাশি থানা পুলিশের টহল অব্যাহত রয়েছে। ত্রাণের জন্যে সরকারিভাবে তালিকা প্রস্তুত শেষ হওয়ার পথে রয়েছে।