জাল কাগজের মাধ্যমে পৈতৃক সম্পত্তি বিক্রির টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ

0
51

আল ইব্রাহিম, (শ্রীমঙ্গল) মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভাড়াউড়া চা বাগান শ্রমিক প্রদীপ কাহার পিতা- মৃত প্রসাদিয়া কাহার এর পৈত্রিক সম্পত্তি বিক্রির টাকা জাল কাগজপত্র দেখিয়ে একই এলাকার রাজা রাম সিং পিতা সুকদেব কাহার এবং মঞ্জু কাহার পিতা ভোলা কাহার আত্মসাৎ করে নেওয়ার অভিযোগে উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন ভূক্তভোগী প্রদীপ কাহার ও তার পরিবার।

বুধবার (১৩ নভেম্বর) রাত ৯ টায় প্রদীপ কাহার শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে , বলেন আমি অল্প শিক্ষিত ও জমিজমা সম্পর্কে অনভিজ্ঞ থাকায় রাজারাম সিংহ ও সুকদেব কাহার আমার ভোগ দখল কৃত পৈতৃক সম্পত্তির উত্তরাধিকারের জাল কাগজপত্র দেখিয়ে নিম্ন তপশিল ভূমি বিক্রি বাবদ ১২ লক্ষ ৪৬ হাজার ২৭২ টাকা তুলে নেয়।

এমতাবস্থায় গত ১৫ /১ / ১৪ ইংরেজি তারিখে আমি আমার বাগান পঞ্চায়েতের কাছে উপরোক্ত ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে জালিয়াতি করে আমার ভোগ দখলকৃত পৈত্রিক সম্পত্তি বিক্রির টাকা আত্মসাতের ঘটনার অভিযোগ করি। এরপর বাগান পঞ্চায়েতে সালিশ বসে অযোধ্যা কাহারের বাসায় তখন উপস্থিত সকলে তাদেরকে জিজ্ঞাসা করিলে তারা ঘটনার স্বীকারোক্তি প্রদান করে এবং বিচারের মাধ্যমে আমাকে ক্ষতিপূরণ বাবদ উক্ত টাকা ফেরত দিতে সম্মত হয়।

কিন্তু পরবর্তীতে সেই টাকা দিতে টালবাহানা শুরু করিলে আমি তাদের বিরুদ্ধে যুগ্ম জেলা জজ আদালত মৌলভীবাজারে একটি‌ মামলা দায়ের করি যা বিগত চার বছর ধরে চলমান রয়েছে। যার মোকাদ্দমা নং ২৪ / ২০১৪। আমার জমির জে.এল নং ৬৪ এস এ খতিয়ান নং ৩৫৫, আর এস খতিয়ান নং ২৪৯৩, এস এ দাগ নং ৮১৯, আর এস দাগ নং ১৭২৬, জমির পরিমাণ ০.১৬ শতক।

তিনি আরো অভিযোগ করেন জমিসংক্রান্ত সকল বৈধ কাগজপত্র ও পৈতৃক উত্তরাধিকার সার্টিফিকেট আমার থাকায় উত্তরাধিকার সুত্রে এই জমির মূল মালিক আমি ও আমার পরিবার। কিন্তু আমার বিবাদীগণের কোনো বৈধ কাগজপত্র না থাকার পরেও উক্ত সম্পত্তি তারা নিজেদের বলে দাবি করে।

এ বিষয়ে রাজারাম সিংহের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানান বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে তাই তিনি এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি নন।