তাড়াইলে দুই ইয়াবা ব্যাবসায়ী গ্রেপ্তার

রুহুল আমিন, তাড়াইল (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ কিশোরগঞ্জের তাড়াইল থানা পুলিশ শহিদুল ইসলাম (২২) ও আল আমিন নামের (৩৭) দুই ইয়াবা ব্যবসায়ীকে ১০ পিছ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা করেছে। এ ব্যাপারে তাড়াইল থানার উপ-পরিদর্শক মাসুদ আনোয়ার আকন্দ বাদী হয়ে মাদক আইনে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ০৮। মামলাটির তদন্তের দায়িত্বে রয়েছে, তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই হাসমত আলী।

জানা যায়, ২৫ মে সোমবার রাত ৯ টায় উপজেলার ধলা ইউনিয়নের ভেয়ারকোনা গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যায়ল সংলগ্ন ঈদগাহ মাঠে ইয়াবা বেচা-কেনা হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাড়াইল থানার উপ-পরিদর্শক মাসুদ আনোয়ার আকন্দ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে শহীদুল ইসলাম ও আল আমিন নামের দুই ইয়াবা ব্যাবসায়ীকে ১০ পিছ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করে।

আরো জানা যায়, আসামীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পানির উপর দিয়ে এলোপাতারি দৌড়ঝাপ শুরু করলে পুলিশও আসামীদের ধাওয়া করে তাদের গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

আসামীরা হল, উপজেলার ধলা ইউনিয়নের ভেয়ারকোনা মাইজপাড়া গ্রামের মৃত আবদুর রাশিদের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী আল আমিন ও ফজলুর রহমানের ছেলে শহিদুল ইসলাম। পুলিশ তাদের দেহ তল্লাশি করলে আল আমিনের কাছে ৫ পিছ ও শহিদুল ইসলামের কাছে ৫ পিছ ইয়াবা পাওয়া যায়। এর পর আসামীদের বাড়িতেও অভিযান চালানো হয়।

২৬ মে মঙ্গলবার দুপুরে আসামীদের কিশোরগঞ্জ কোর্ট হাজতে পাঠানো হয়েছে।

তাড়াইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুজিবুর রহমান বলেন, আল আমিন ইয়াবা বেচা-কেনার রফাদফা করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযাব চালানো হয়। আসামীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে যাওয়াতে বেশী পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। আল আমিন হলো উপজেলার একমাত্র ইয়াবার বড় ডিলার। তার নামে কিশোরগঞ্জ সদর, নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া থানা ও তাড়াইল থানায় ১৭ টি মাদক মামলা রয়েছে। তিনি আরো বলেন, আসামীদের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাদের কিশোরগঞ্জ কোর্ট হাজতে পাঠানো হয়েছে।