তীব্র শীতে ছিন্নমূল শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণে রাজশাহী পুলিশ সুপার শহিদুল্লাহ পিপিএম

রুহুল আমীন খন্দকার, ব্যুরো প্রধান : পুলিশই জনতা জনতাই পুলিশ” মানুষ মানুষের জন্য জীবন জীবনের জন্য এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সারাদেশের ন্যায় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষথেকে দেশব্যাপী চলছে শৈত্যপ্রবাহে শীতবস্ত্র বিতরণ। প্রচন্ড শীতে জনজীবন যখন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে চরম কষ্ট সহ্য করতে হচ্ছে ছিন্নমূল ও খেটে খাওয়া শ্রেণি পেশার সাধারণ মানুষকে। এই তীব্র শীতে অসহায় ও দুস্থ মানুষদের একটু উষ্ণতা দিতে তানোর থানার বিভিন্ন এলাকায় রাতে ছিন্নমূল শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ালেন রাজশাহীর জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহিদুল্লাহ পিপিএম।

সোমবার ৩০শে ডিসেম্বর ২০১৯ ইং রাত ৮টার দিকে জেলার তানোর থানা এলাকার মাসিন্দা গুচ্ছগ্রাম, কালনা ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠি গ্রাম, তালন্দ এলাকাসহ বিভিন্ন স্থান ঘুরে ঘুরে দুই শতাধিক কম্বল বিতরণ করেন তিনি।

উক্ত শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে আকর্ষীক উপস্থিত হন পুলিশ সুপার শহিদুল্লাহ পিপিএম, কিছুণের জন্য শীতের কষ্ট ভুলে যান ছিন্নমূল এসব মানুষ। প্রশাসনের পক্ষথেকে কোনো ধরনের আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই পুলিশ সুপার নিজেই উপস্থিত হয়ে ছিন্নমূল এইসব শিশু, কিশোর, নারী, পুরুষ, বৃদ্ধদের কম্বল বিতরণ করে এলাকায় চানঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে । কম্বল গুলো পেয়ে এসব অসহায় মানুষ অনেক খুশি হয়েছে, যা তাদের চোখেমুখের উচ্ছ্বাস দেকেই লক্ষ করা যায়।

এ সময় পুলিশ সুপার তার বক্তব্যে বলেন, শীতের কারণে জনজীবন অনেকটায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বাড়ছে ঠান্ডাজনিত রোগ ব্যাধি। প্রচন্ড শীতের কারণে রাতে অসহায় ও ছিন্নমূল মানুষগুলো ভীষণ কষ্ট পান। এরাই প্রকৃত শীতার্ত মানুষ, আমরা তাদের কষ্ট কিছুটা লাঘব করার জন্য রাতে বের হয়েছি। আইন শৃঙ্খলার পাশাপাশি দেশ ও জাতির কল্যানার্থে মানবিক কাজে সব সময় সাধারণ মানুষের পাশে রয়েছে আমরা রাজশাহী জেলা পুলিশ।

এই শীতার্ত হতদরিদ্র মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণের সময় পুলিশ সুপার মোঃ শহিদুল্লাহের সাথে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মাহমুদুল হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) মোঃ ইফতে খায়ের আলম, সহকারী পুলিশ সুপার, গোদাগাড়ী সার্কেল মোঃ আব্দুর রাজ্জাক খান ও তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাকিবুল হাসান ও থানা পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দসহ এলাকার সুধী সমাজ।