নরসিংদীতে দুই নারী সহ তিনজনের মৃত্যু, এক পরিবারের মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ

নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদী চাচাতো ভাইয়ের শ্বশুর বাড়ী থেকে ফিরে দুই নারীকে নিয়ে ঘুরতে বের হয় দেলোয়ার হোসেন দিপু (২৫) নামে এক যুবক। তারা তিন জনই সড়ক দুর্ঘটনায় লাশ হয়ে বাড়ী ফিরেছে। সোমবার(২০ জুলাই) রাত সাড়ে ১০টায় এ ঘটনা ঘটে। দিপুর শরীরের জখম দেখে এ মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ বেধেছে স্বজনদের মাঝে। সঠিক তদন্ত করে এ চাঞ্চল্যকর মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন চায় নিহতদের পরিবার। মঙ্গলবার (২১ জুলাই) বিকালে নিহত দিপুর স্বজনরা জানান নিহত দিপু শিবপুর উপজেলার খড়িয়া গ্রামের সৌদি প্রবাসী আনোয়ার হোসেন এর ছেলে। ওই দুই নারী দিপুর দূর সম্পর্কের আত্মীয় ও বান্ধবী এরা হলো নরসিংদী পৌর শহরের বাসাইল এলাকার মোহাম্মদ আলীর মেয়ে মনিরা আক্তার মনি (২৯) ও নারায়নগঞ্জ বন্দরের নবীগঞ্জ এলাকার বিল্লাল হোসেনের মেয়ে রুপা বেগম (২৫)। এরমধ্যে নিহত রুপা ও মনিরা সম্পর্কে খালাতো বোন। রুপা নরসিংদীর বাসাইলে মনিরাদের বাড়িতে থাকত।

নিহত দিপুর চাচাতো ভাই তারেক জানান, সোমাবর দুপুরের পর মটরসাইকেল যুগে ভৈরব তার শ্বশুর বাড়িতে যায় দেলোয়ার হোসেন দিপু। বিকেলে ভৈরব থেকে ফিরে নরসিংদী শহরের দুই বান্ধবীকে সাথে নিয়ে মটরসাইকেল যুগে মাধবদী থানাধীন কুড়েরপাড় শিল্পী নামক আরেক বান্ধবীর বাড়ীতে বেড়াতে যায়। দিপু রাজধানীতে একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজে লেখাপড়া করত। মনি ও রুপা নরসিংদীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে চাকরি করত। 

নিহত দিপুর দূর সম্পর্কের মামা তুহিন জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় দিপু মারা গেছে এমন খবর পেয়ে সোমবার রাতে মাধবদীতে পাঁচদোনা পুলিশ ফাঁড়িতে যাই। দিপু তার সাথে দুই মেয়ে নিয়ে পাঁচদোনায় দুর্ঘটনার শিকার হয়। সেখানে হালকা আচঁর লেগে তার মডিফাই করা আরওয়ান ফাইভ মটরসাইকেলটি পরে আছে। আর ঘটনাস্থল থেকে এক কিলোমিটার দূরে শেখেরচর থেকে দিপুর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। একজন অপরিচিত লোক তরিগরি করে লাশ নিয়ে যাওয়ার জন্য তাগিদ দেয় পরে দিপুর লাশ নিয়ে শিবপুরে চলে আসি। কিন্তু দিপুর মরদেহের সুরতহাল ও ক্ষত অনুযায়ী এটি দুর্ঘটনা বলে মনে হয় না। আর দুর্ঘটনা হয়েছে পাঁচদোনায় আর লাশ পাওয়া গেছে শেখেরচরে এ বিষয়টি সন্দেহজনক। এটি হত্যা হতে পারে বলে আমরা ধারনা করছি। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও শিবপুর থানা পুলিশের সহযোগিতায় লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়।

মাধবদী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তানভীর জানান, নিহত দিপুর মরদেহ শেখেরচর মাজার বাসস্ট্যান্ড করতোয়া কুরিয়ার সার্ভিস এর সামনে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক থেকে উদ্ধার করা হয়। তবে ঘটনারদিন প্রচুর বৃষ্টি হওয়ায় সড়ক দুর্ঘটনার কোন প্রত্যক্ষদর্শী নাই।

পাঁচদোনা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই ইউসুফ জানান, মনি ও রুপাকে পাঁচদোনা বাজার সংলগ্ন আমজাতের বিল্ডিং এর সামনে ঢাকা সিলেট মহাসড়ক থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। পরে নরসিংদী সদর হাসপাতালে সিএনজি যুগে প্রেরণ করা হলে হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিসৎক মনি ও রুপাকে মৃত ঘোষনা করেন। 

মাধবদী থানার ওসি তদন্ত তানভীর আহমেদ জানান,আইনি প্রক্রিয়া শেষে স্বজনদের মাঝে তিন জনের মরদেহ হস্তান্তর করা হলে। নিহত দিপুর পরিবারের লোকজন এ সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করলে দিপুর মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে প্রেরণ করা হয়। 

এ ঘটনায় নিহত দিপুর মা মরিয়ম বেগম বাদি হয়ে মাধবদী থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আর দুর্ঘটনায় নিহত বাকি দুজন মনিরা ও রুপার পরিবার আবেদনের ভিত্তিতে বিনাময়না তদন্তের লাশ নিয়ে দাফন কাফন সম্পন্ন করেছেন।

ছবি:  দেলোয়ার হোসেন দিপু (২৫)