নাটোর সদরে বৃদ্ধ দম্পতিকে ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদ ও প্রাণনাশের চেষ্টা: জীবন রক্ষায় দম্পতির পলায়ন

নাটোর প্রতিনিধি: মোঃ জাকির হোসেন জন্মসূত্রে চাঁদপুর বাড়ি হলেও চাকরির সুবাদে তার জীবনের বেশিরভাগ সময় কেটেছে দেশের বিভিন্ন জেলায়। পেশায় ছিলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের একজন নিরাপত্তা বাহিনীর হাবিলদার।

স্ত্রী-সন্তান নিয়ে নাটোরে কাটিয়েছেন বেশ কিছু বছর। সে সুবাদে অবসরকালীন সরকারি অর্থ ও তিলে তিলে যোগানো অর্থ দিয়ে নাটোর শহরের বন বেলঘড়িয়ার ৯ নং ওয়ার্ডে সুখে থাকার প্রত্যাশায়, একটি বাড়ি ক্রয় করে বসবাস করেন। সরকারের একটি ডিপার্টমেন্টের অবসরপ্রাপ্ত সাবেক অফিসার কে এলাকার সকলেই সন্মানের চোখেই দেখতেন।

তার দুই ছেলের একজন জন্মস্থানের বাপ-দাদার ভিটেমাটি ও অপরজন কর্মের তাগিদে প্রবাসে থাকেন। ফলে নাটোরের এ বাড়িতে বুড়ো বুড়ি ছাড়া তেমন কেউ আর থাকে না। পাশের ৮ নং ওয়ার্ডের স্থানীয় মাস্তান এদেরকে ভিন্ন জেলার লোক হিসেবে একা পেয়ে প্রতিনিয়ত চাঁদা দাবি করে আসছেন বলে জানান জাকির হোসেন। তিনি আরো জানান আমার জানা মতে আমার পুত্র কাজলের সাথে অনেক পূর্বে, উক্ত সন্ত্রাসী মিজান কয়েকদিন আমার বাড়িতে আসছিল।
এর বেশি আর কিছুই জানিনা আমি।

গত ২০ শে সেপ্টেম্বর ১৯ চাঁদার দাবীতে তার সাথে থকা সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে এসে আমদের উপর হামলা চালায় এবং অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে। তাদেরকে ১০ লক্ষ টাকা দিলেই নাকি আমাদের নিরাপদে থাকতে দিবে মর্মে শাসিয়ে যান বলে জানান ভুক্তভুগী জাকির হোসেন। বিষয়টি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এতদ্বসত্ত্বেও ২৫ শে সেপ্টেম্বর তারা পুনরায় আমাদের উপর হামলা করতে আসলে আমরা ডাক চিৎকার দেই এতে কিছু লোকজন দৌড়ে আসলে, সে দিনও প্রাণে বেঁচে যাই। আর কোনো উপায়ন্তর না পেয়ে ২৮ শে সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে, স্বামী, স্ত্রী কোনোরকমে জীবন রক্ষায় এ বুড়ো বয়সে বাড়িঘরের মায়া ত্যাগকরে চলে আসি। অতীব দুঃখের বিষয় এই যে ৩ রা অক্টবর২০১৯ উক্ত সন্ত্রাসীগণ আমার বাড়ির গেইটের ও ঘরের তালা ভেঙ্গে অনধিকার প্রবেশ করে আমার ঘরে থাকা সকল মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায় শুনে আমরা দিকবিদিকশুন্য হয়ে পড়ি।

জীবনের সহায়সম্বল হারিয়ে আজ আমি পথে পথে নিদারুণ কষ্টে জীবন যাপন করছি।
আমি নিজেই একজন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য হয়ে আজ আমি এখন নিজেই নিরাপত্তাহীণতায় ভুগছি। আমি প্রশাসনের সদয় হস্তক্ষেপ কামনা করছি বলে জানান অসহায় অবসরপ্রাপ্ত এ সরকারি কর্মকর্তা জাকির হোসেন। তিনি আরও জানান উক্ত মিজানুর রহমান তৌহিদ এর বিরুদ্ধে নাটোর সদর থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। সে সকল প্রকার অপকর্মের সাথে জড়িত বলে জানান ভুক্তভুগী জাকির হোসেন।