পাকুন্দিয়ায় ঘুমন্ত অবস্থায় স্ত্রী কে কুপিয়ে হত্যা করেছে স্বামী

মোবারক হোসেন, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:
কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় পারিবারিক কলহের জের ধরে ঘুমন্ত অবস্থায় স্ত্রী কে কুপিয়ে হত্যা করেছে স্বামী। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের দগদগা এলাকার। নিহত মাহফুজা খাতুন (৩৫) ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলার সোহরাব উদ্দিনের মেয়ে। এই ঘটনায় ঘাতক স্বামী আবুবকর সিদ্দিক পলাতক রয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ১২ বছর আগে মাহফুজা খাতুন ও আবুবকর সিদ্দিকের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে অশান্তি লেগেই থাকত। তাদের সংসারে ১০ বছর ও ৬ বছর বয়সী দুই টি সন্তান রয়েছে। গত ৬ বছর ধরে আবুবকর সিদ্দিক বিদেশে থাকতেন। ৩ দিন আগে বিদেশ থেকে দেশে আসেন স্বামী আবুবকর সিদ্দিক। ২০ জুলাই সোমবার রাতে তাদের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। এমতাবস্থায় স্ত্রী মাহফুজা খাতুন রাতে স্বামীর ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। গভীর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় স্ত্রী মাহফুজা খাতুন কে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে স্বামী আবুবকর সিদ্দিক পালিয়ে যায়।

এতে মাহফুজার চিৎকার চেঁচামেচিতে স্থানীয়রা এগিয়ে আসার পর পরই মাহফুজা খাতুনের মৃত্যু হয়। স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গৃহবধূ মাহফুজা খাতুনের মরদেহ উদ্ধার করে।এই ঘটনায় নিহতের বাবা সোহরাব উদ্দিন বাদী হয়ে পাকুন্দিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পাকুন্দিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মফিজুর রহমান জানান, পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে গৃহবধূ মাহফুজা খাতুনের লাশ উদ্ধার করে।

এই ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘাতক স্বামী আবুবকর সিদ্দিক কে গ্ৰেফতারে অভিযান চলছে।