ফরিদগঞ্জে খাল দখলের মহোৎসব: প্রশাসন নিরব

জাকির হোসেন সৈকত:- যে খানে খাল নদী নালা উচ্ছেদ অভিযান চলমান রয়েছে। সে খানে ফরিদগঞ্জে খাল দখলের মহোৎসব চলছে। প্রধানমন্ত্রীর নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও থেমে নেই খাল ও জলাশয় দখল। একারনে প্রায় ৭শত একর কৃষি জমি হুমকির মুখে পড়েছে। প্রশাসন এখন নিরব ভূমিকা পালক করছে বলে, অভিযোগ করেন, স্থানীয় লোকজন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার ১২নং চরদুঃখিয়া ইউনিয়নের ফিরোজপুর বাজারে সরকারী খাল দখল করে আছে স্থানী রাজননৈতিক নেতা ও প্রভাবশালী লোকজন কোথাও আবার রাজনৈতিক নেতাদের ছত্রচ্ছায়ায় সাধারণ মানুষ ও ভটে। খালের দুই পাড়ে স্থাপনা নির্মাণ করার ফলে একদিকে যেমন খাল সংকুচিত হয়ে যাচ্ছে। ঠিক তেমনি অন্যদিকে খালের নব্যতা কমে ভরাট হয়ে যাচ্ছে। এতে করে পানি সঠিক ভাবে সঞ্চালন না হওয়ার কারনে, প্রায় ৭শত একর ফসলি জমি বন্ধ হওয়া উপক্রম হয়ে উঠেছে। এক সময় এই খাল দিয়ে নৌকায় মানুষ মালামাল নিয়ে যাতায়াত করা হত, আজ তা বন্ধ হয়ে গেছে। এদিকে জানাযায় খালটিতে দখল করে আছে স্থানী শহিদ ভূইয়া, সাত্তার পাটওয়ারী, দেলোয়ার মোল্লা ও সুমন মোল্লাসহ আরো অনেকে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, মোটা অংকের টাকার বিনিময় প্রশাসন খালটিকে গিলে খাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। বৃষ্টির দিন এলে চরম দুর্ভোগে বসবাস করে সাধারণ মানুষ। খালের দুই পাড় দখল করার কারণে পানি নিষ্কাশনের কোন ব্যবস্থা নেই। বিভিন্ন বাসা-বাড়ির ময়লা আর্বজনা খালে ফেলা হয়। খালটি দখল করায় যেটুকু অংশ বাকি আছে তাও ময়লায় ভরপুর। এই ময়লা পানি দিয়ে আমাদের দৈনন্দিন কাজকর্ম করতে হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন কৃষক বলেন, এই খালের সাথে ডাকাতিয়া নদীর সংযোগ রয়েছে। যে কারনে এর পানি সেছ করে আমরা কৃষি কাজ করে থাকি। কিন্তু খালটি দখল করার কারনে, সঠিক ভাবে পানি আসতে না পারায়, আগামীতে কৃষি কাজ আর করা যাবেনা। এবং আমাদের এলাকার প্রায় ৭শত একর জমি ধান ও শষ্য চাষ থেকে বঞ্চিত হবে।
আমরা কৃষকরা মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্থ হবো। বন্ধ হয়ে যাবে আমাদের ফসল উৎপাদন। এক সময় গোটা এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হবে। বিষয়টি সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিতে আনা হলেও এখনও কোন কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিউলী হরি বলেন, বিষয়টি আমি উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কে বলতেছি বিষয়টি যেন গুরুত্বসহকারে দেখে হয়। প্রয়োজন হলে আমি নিজে গিয়ে দেখবো। এবং যারা অবৈধ ভাবে খাল দখল করে আছে, তাদের বিরোদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করবো।