ফরিদগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলা আহত ২

স্টাফ রিপোর্টার : গতকাল ২ জুলাই  বৃহস্পতিবার সকালে ফরিদগঞ্জ উপজেলার ২ নং বালিথুবা পুর্ব ইউনিয়নের  সরখাল গ্রামের হাজী বাড়িতে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে  অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে, ওই সন্ত্রাসী হামলায় দুইজন আহত হয়েছেন, আহতরা হলেন আব্দুস সাত্তার (৮০)ও তার স্ত্রী মাহমুদা বেগম ( ৬৫)আহতরা চাঁদপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

আহত আব্দুস সাত্তারের ছেলে হাছান মাহমুদ জানান তার পিতার ক্রয়কৃত  সম্পত্তি বিগত ৪০ বছর ধরে একই বাড়ির  আক্তার হোসেন, আবুল হোসেন,মমিন হোসেন গংরাদীর্ঘ ৪০ বছর ধরে  জোরপূর্বক ভোগ দখল করে আসছিল, আমরা দলবলে কম হওয়ায় জমির দখল পাননি, তাই তার পিতা আব্দুস সাত্তার বিগত ১৫ অক্টোবর ২০১৯ ইং সালে, চাঁদপুর পুলিশ সুপার বরাবরে একখানা অভিযোগ দাখিল করেন, যে তার ক্রয় কৃত জমি ৪০ বছর ধরে ভোগ দখল  পাচ্ছে না, পুলিশ সুপার ফরিদগঞ্জ  থানা কে দায়িত্ব দেন,  থানা পুলিশ  ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদকে দায়িত্ব দেন,  চেয়ারম্যান স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে আবদুস সাত্তারের জায়গা সত্যতা পান, এবং জমির কগজপত্র সঠিক বলে বিবেচিত হয়, সে অনুযায়ী চেয়ারম্যান সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের ও বাদী-বিবাদীর  উপস্থিতিে ২৭ শে জুন ২০২০ইং তারিখে আঃ সাত্তারকে উক্ত  জায়গা ভোগ দখল বুঝিয়ে দেওয়া হয়, 
কিন্তু আক্তার হোসেন গংরা ওই সময় শালিসি সিদ্ধান্ত  মেনে নিলে ও পরবর্তীতে ৩০ জুন  থানায় আব্দুর সাত্তার গং দের কে বিবাদী করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন,  থানা পুলিশ উভয় কে  নিয়ে ১লা জুলাই  থানায় বসেন এবং পুনরায় ৯ জুলাই থানায় বসায় সিদ্ধান্ত হয়, কিন্তুু আক্তার হোসেন গংরা থানা ও এলাকায় শালিসি বৈঠকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে ওই জমিতে আজ ২ জুলাই সকালে গিয়ে গাছ গাছালি কেটে ফেলেন এ সময় আব্দুস সাত্তার বাধা দিতে গেলে আক্তার হোসেন, আবুল হোসেন, মমিন হোসেন সহ অজ্ঞাত ১০/১৫ ভাড়াটিয়া সন্তসী মিলে, আব্দুর সাত্তার ও তার স্ত্রী উপর অতর্কিত হামলা চালায়,হাচান মাহমুদ আরো জানায়,স্হানীয় মেম্বার আবু হারেছ মিজির ইন্দনে এ হামলার ঘটনা ঘটানো হয়েছে। 

উক্ত হামলার ঘটনার সঠিক তদন্তে করে দোষীদের বিরুদ্ধে  আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য প্রসাশনের সহযোগিতা কামনা করছেন আহত আব্দুর সাত্তার গংরা।