ফিরে দেখা ঋতুরাজ বসন্ত বরণে প্রাণ পাগল তরুণীদের উচ্ছাস

নিউজ ডেস্ক: এইত সেদিন সবে ঋতুরাজ বসন্ত বরণ ও ভালোবাসা দিবস একিদিনে উদযাপন হলো। এদিনের কিছু ছবি। কবি বলে নয় নয়নাভিরাম বলে আমার দৃষ্টির মধ্যে চোখ পড়েছে। তবে এদিন যারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যায় চত্বর ও একুশে বই মেলাতে ঘুড়েছেন সবারই সুন্দর সুন্দরে মন ছোঁয়েছে। কিছু আবেগ। কিছু ভালোবাসা। কিছু ছন্দ। কিছু আনন্দ। কিছু প্রেম আছে বলেই জিবন এতো সুন্দর। ঋতুরাজ আগমনের ছোঁয়া যখন প্রকৃতির মাঝে বিভাশিত তখন মানবিক চিত্তে ধেয়ে উঠে এক নাবলা বাসনার চিত্র। সে আসলে পরিবর্তন শুধু পরিবেশ বৈচিত্রে সীমাবদ্ধ থাকেনা মানুষ্য মননেও তার সুখটা স্পর্শিত হয়ে উঠে। তাই বসন্ত অবির্ভাবে সবার মাঝে স্ফুরিত অংকুর রঙের বাহার খুঁজে।

 পহেলা ফাল্গুন ভালোবাসার দিনে তাইতো শৈল্পিক হয়ে আসে স্বপ্ন তুল্য সাঁজের মানুষের নান্দিক বিচরণ। কিশোর যুবা কিংবা পৌঢ় সবাই ছুটে ক্ষানিক ফুর্তিতে নবজাগরণ মিলন মোহনায়। সেই উৎসবের কিছু মনোহরা মধুর ছবি। ভালোবাসা দিবসের মনলোভা আদরণীয় ফ্রেমবন্দী কিছু ক্ষণ। যৌবন বিচ্ছুরিত সুর্য্যমুখী বরণীয় কাব্য মুহুর্ত্যের ঝর্ণাধারা। যা কবিতা নির্ঝর শব্দের বাসর।

একবার নয় বারবার এই ছবিগুলো আমাদেরকে যৌবনের গান গেয়ে নিরন্তর সুন্দর জিবনের কথা বলে যায়। প্রেমের গল্প শুনিয়ে সত্যিকারের বোধ ভালোবাসার গভীরে ডুবিয়ে দেয়। আহা কি সুন্দর আহা কি মোহ! আহা কি প্রিয় এই জিবন। এই প্রাণ এই প্রিয় জন্ম। যারা এদিনটিকে নিজের উজার করা সৌন্দর্য প্রিয়তাকে ঢেলে দিয়ে, রঙে রঙ্গিন করে তুলেছেন আদরণীয় ললনাদের জানাই বাসন্তী পাপড়ির ছোঁয়া একরাশ ভালোবাসা। একরাশ সুন্দর সুখ প্রত্যাশার শুভেচ্ছা ও শুভকামনা।