বরগুনায় স্কুলছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা ২০ জন নামে মামলা

মোঃ আসাদুজ্জামান: বরগুনায় স্কুলছাত্র হৃদয়কে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ২০ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের হয়েছে। নিহতের মা ফিরোজা বেগম বাদি হয়ে মঙ্গলবার রাতে বরগুনা সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় এজাহারভুক্তসহ জড়িত সন্দেহে মোট সাত আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাত ১০টায় পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শাহজাহান এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ জানায়, গোলবুনিয়া এলাকার পনু কাজীর ছেলে নোমান কাজী (১৮) ও লিটনের ছেলে নয়নের সাথে পূর্ব শত্রুতার জেরে হৃদয় ও তার বন্ধু বান্ধবদের কথা কাটি হয়। এক পর্যায়ে উভয় গ্রুপ মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে হতাহত হয়। এতে গুরুতর আহত হৃদয় (১৫) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

ঘটনায় এজাহারভুক্ত ১নয় আসামী নোমান (১৮) , ২নং আসামী নয়নসহ (১৭) এজাহারভুক্ত ৬জন ও জড়িত সন্দেহে একজন মোট সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বাকীদেরও গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, সোমবার ঈদের দিন বিকেলে বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের গোলবুনিয়া এলাকায় পায়রা নদীর তীরে বেড়াতে নোমান ও নয়নের সাথে পূর্বশত্রুতার জেরে হামলার শিকার হয়ে হৃদয় (১৫) মঙ্গলবার সকালে হাসপাতালে চিকিতসাধীন অবস্থায়।

হৃদয় বরগুনা পৌরশহরের চরকলোনী এলাকার দেলোয়ার হোসেনের একমাত্র ছেলে। সে বরগুনা টেক্সটাইল ও ভোকেশনালে স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিল।