বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশ

ডেক্স রিপোর্ট:

এক জয় আর এক হারের পর শিরোপার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে জয়ের বিকল্প ছিল না বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের। অবশেষে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে বৃষ্টি আইনে ৯ উইকেটে হারিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে টাইগার যুবারা।

শনিবার (২২ জানুয়ারি) শুরুতে ব্যাট করে ১৪৮ রানেই গুটিয়ে যায় সংযুক্ত আরব আমিরাত। জিততে হলে রাকিবুল বাহিনীকে করতে হতো মাত্র ১৪৯ রান। ওয়ানডে ক্রিকেটে এক সহজ লক্ষ্যই বলা চলে।

সহজ টার্গেট তাড়া করতে নেমে বাংলাদেশের শুরুটাও হয় দুর্দান্ত। দুই ওপেনার মাহফিজুল হক ও ইফতেখার ইসলামের ওপেনিং পার্টনারশিপে আসে ৮৬ রান। অবশ্য এরপরই ৭০ বলে ব্যক্তিগত ৩৭ রানের মাথায় আউট হন ইফতি।

আর এরপরই বৃষ্টির কারণে বন্ধ থাকে খেলা। শেষমেশ মাঠে আর বল গড়ায়নি। আর তাই বৃষ্টি আইনে ৯ উইকেটের জয় তুলে নিয়েছে লাল-সবুজ বাহিনী।

এর আগে প্রথম ইনিংসে সেন্ট কিটসের ওয়ার্নার পার্ক স্টেডিয়ামে শুরু থেকেই বাংলাদেশি বোলারদের তোপের মুখে ছিল সংযুক্ত আরব আমিরাতের ব্যাটাররা। দলীয় ৮ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে ফেলে তারা। সোরিয়া সাথিস ও কাই স্মিথ দুজনকেই ব্যক্তিগত ২ রান করে সাজঘরের পথ ধরতে হয়। এদের শিকারে পরিণত করেন আশিকুর জামান।

এরপর কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেন ধ্রুব প্যারাশার ও আলিশান শারাফু। ধ্রুব ৩৩ ও শারাফু ২৩ রান করেন। পুনিয়া মেহরার ব্যাট থেকে আসে সর্বোচ্চ ৪৩ রান। বাকিদের মধ্যে আফজাল খান ১১, রোনাস পানোলি ৮, আলি নাসের ৭ ও আতিদ্য শেটি ৪ রান করেন। বাংলাদেশের হয়ে ৩ উইকেট পান রিপন মণ্ডল। ২টি করে উইকেট নেন আশিকুর ও সাকিব।

এ ম্যাচের আগে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাংলাদেশের পয়েন্ট সংখ্যা সমান, ২ করে। ম্যাচটিতে যারা জিততো তারাই পৌঁছে যেত পরবর্তী ধাপে। তবে শেষমেশ সেন্ট কিটসের ওয়ার্নার পার্ক নিজেদের করে নিয়েছে যুব বিশ্বকাপের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ।

রাকিবুলরা এবারের টুর্নামেন্ট যাত্রা করেছিল দ্বিতীয়বার শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে নিয়ে। তবে আসরের প্রথম ম্যাচেই সমর্থকদের হতাশ করেছে টাইগার যুবারা।

প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বড় ব্যবধানে হারে রাকিবুল হাসানের নেতৃত্বধীন খুদে টাইগাররা। অথচ অধিনায়কসহ দলে বেশকিছু ক্রিকেটার আছেন যারা গত আসরে দক্ষিণ আফ্রিকা দুর্গ জয় করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে কানাডার বিপক্ষে জয় তুলে নিয়ে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ একাদশ

মাহফিজুল ইসলাম, ইফতেখার হোসেন, প্রান্তি নওরোজ, আইচ মোল্লা, মো. ফাহিম, আরিফুল ইসলাম, এসএম মেহরব, আশিকুর জামান, তানজিম হাসান সাকিব, রাকিবুল হাসান ও রিপন মণ্ডল।