বুড়িচংয়ে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে ১ শিবির কর্মীসহ ২ পুলিশ আহত

মামুনুর রশিদ (দেবীদ্বার-কুমিল্লা)প্রতিনিধি: কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার দক্ষিন ইউনিয়নের ভারেল্লা এলাকায় শুক্রবার বেলা সোয়া১১টায় শিবিরের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ওই সময় এক শিবির কর্মীসহ ২ পুলিশ আহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৯টি ককটেল, লিফলেট,ব্যানার ফেস্টুন উদ্ধার করেছে।

বুড়িচং থানার অফিসার ইনচার্জ আকুল চন্দ্র বিশ্বাস জানান,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের কাছে খবর আসলে উপজেলার ভারেল্লা দক্ষিন ইউনিয়নের ভারেল্লা শাহ ইসরাইল কামিল মাদ্রাসার পিছনে একটি ঘরে শিবিরের একদল নেতাকর্মী নাশকতার উদ্যোশে একত্রিত হয়েছে।

এ খবরে দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ীর এএস আই দেলোয়ার হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে শিবির কর্মীরা পুলিশের উপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করলে থানার ওসি আকুল চন্দ্র বিশ্বাস অতিরিক্ত ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে যায়।এসময় শিবির কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে,এতে এ.এস.আই দেলোয়ার ও কন্সটেবল মাহবুব আহত হয়।পুলিশ এসময় গুলি চালালে শিবির কর্মীরা পিছু হটে পালিয়ে যায়।

পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক শিবির কর্মীকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।গুলিবিদ্ধ শিবির কর্মী কুমিল্লা দেবীদ্বার উপজেলা মহেশপুর গ্রামের শাহিনুরের ছেলে মোঃবায়েজিদ বলে জানা যায়। বর্তমানে সময়ে হরতাল, অবরোধ নাই তবে কেন নাশকতার কারন কি হতে পারে জানতে চাইলে

দৈনিক তৃতীয় মাত্রা কে বুড়িচং থানা অফিসার ইনচার্জ আকুল চন্দ্র বিশ্বাস জানান বর্তমান সময়ে সরকারের উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে ব্যাহত করার লক্ষ্যে উদ্দেশ্যে শিবির কর্মীরা নাশকতার চেস্টা চালানোর প্রক্রিয়া করছিলো বলে তিনি জানান।

ওই ঘটনায় আহত পুলিশের সদস্যরা কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন এবং ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুড়িচং থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে অফিসার ইনচার্জ জানায়