বেপরোয়া গতির কারনে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় রাজশাহীর তানোরে প্রাণ গেলো এক কৃষি শ্রমিকের

রুহুল আমীন খন্দকার, বিশেষ প্রতিনিধি :রাজশাহীর তানোরে বেপরোয়া মোটরসাইকেলের ধাক্কায় তাজেমুল ইসলাম (৩৮) নামে একজন (ধানকাটা) কৃষি শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত তাজেমুল উপজেলার মুণ্ডুমালা আইড়্যারমোড় এলাকার আব্দুস সাত্তারের ছেলে। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা দিকে তানোর পৌর এলাকার আমশো মেডিকেল মোড় সংলগ্ন স্থানে এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সুত্র থেকে জানা যায়, আমশো গ্রামের রাকিবুল এর জমি থেকে ধান কেটে মাথায় নিয়ে শ্রমিকরা ফিরছিলেন। এ সময় উপজেলার সিধাইড় গ্রামের আব্দুল হান্নানের পুত্র নাহিদ হাসান দ্রুত গতিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে ওই সড়ক দিয়ে যাচ্ছিলেন। সেই সময় তাজেমুল ইসলাম নামের শ্রমিককে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায় গাড়িটি। পরে স্থানীয় লোকজন ও অন্যান্য শ্রমিকরা আহত অবস্থায় তাজেমুলকে তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।  সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করে। রামেক হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাস্তায় ওই শ্রমিকের মৃত্যু হয়।

আমশো এলাকাবাসীসহ তানোর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মশিউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, স্থানীয় মাইক্রো ড্রাইভার সালামের গাড়ি করে গুরুতর আহত অবস্থায় শ্রমিক রাজশাহী মেডিকেলে নেয়ার পথে মারা গেলে নিহতের লাশ রাতেই তার বাড়ি মুন্ডুমালা এলাকার আইড়্যার মোড়ে প্রেরণ করা হয়। কিন্তু ওই এলাকার লোকজন মাইক্রোচালককে ভূলবুঝে আটক রাখে। পরবর্তীতে গাড়ির ড্রাইভার নির্দোষ হওয়ায় তাকে ছেড়ে দেয় এলাকা বাসি।এ নিয়ে তানোর থানায় ১টি লিখিত মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ বিষয়ে শনিবার সন্ধায় তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাকিবুল হাসানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। তার প্রেক্ষিতেই দেশের প্রচলিত আইনে ১টি (এ্যাকসিডেন্টাল) হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ঘটনাস্থল থেকে এ্যাকসিডেন্টকৃত ১৬০ সিসি এ্যাপাসি আরটিআর (লাল কালার) ১টি মটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়। তবে, পুলিশ পৌঁছার পূর্বেই পলাতক মোটরসাইকেল চালককে আটক করা যায় নি, তাকে আটকের জোর চেষ্টা চলছে।