মুন্ডুমালা পৌর বাজার এলাকায় নির্বাচনে আগাম নৌকার প্রচারনায় মাঠে সম্ভাব্য প্রার্থী ত্যাগী’নেতা সাইদুর রহমান

মুন্ডুমালা পৌর বাজার এলাকায় নির্বাচনে আগাম নৌকার প্রচারনায় মাঠে সম্ভাব্য প্রার্থী ত্যাগী'নেতা সাইদুর রহমান
মুন্ডুমালা পৌর বাজার এলাকায় নির্বাচনে আগাম নৌকার প্রচারনায় মাঠে সম্ভাব্য প্রার্থী ত্যাগী'নেতা সাইদুর রহমান

রুহুল আমীন খন্দকার: বিশেষ প্রতিনিধি: করোনাভাইরাসের ধাক্কা কিছুটা কাটিয়ে উঠতেই নির্বাচনী ব্যস্ততা বেড়েছে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে। জাতীয় সংসদের শূন্য হওয়া ৫ আসনের উপনির্বাচনের সঙ্গে ডিসেম্বরে অনুষ্ঠেয় সারা দেশের পৌরসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করেছে আওয়ামী লীগসহ অন্যন্য রাজনৈতিক দল। তবে দলীয় না জোটগতভাবে নির্বাচনে অংশ নেবে- তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তফসিল ঘোষণার পর জোটের বৈঠকে এটি চূড়ান্ত করা হবে। যদিও এ মুহূর্তে দলীয়ভাবেই যাবতীয় প্রস্তুতি নিচ্ছে ক্ষমতাসীনরা।
এরই ধারাবাহিকতায় রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুন্ডুমালা পৌর এলাকার ব্যাবসায়ীসহ সাধারণ ভোটার দের মাঝে নৌকার পৌচরণা ও গণসংযোগ কালে দোয়া চাইলেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক, আওয়ামীলীগের ত্যাগীনেতা সাইদুর রহমান। আজ রবিবার (১৮ অক্টোবর) ২০২০ ইং বেলা সাড়ে ১১টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত নৌকার পক্ষে দলের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে এই গণসংযোগ চালান তিনি। 


গণসংযোগ কালে মুন্ডুমালা বাজার এলাকার প্রতিটা ব্যাবসায়ী ও এলাকা গুলোর সাধারণ মানুষের সঙ্গে অত্যন্ত বিনয়ের সাথে কথা বলতে দেখা গেছে নেতা সাইদুর রহমানকে। গণসংযোগের সময় আরো লক্ষ করা যায় এলাকার প্রবীণ মানুষরা তার মাথায় হাত বুলিয়ে দোয়া করে দিচ্ছেন। সেই সময় সাইদুর রহমান কেউ কিছুটা আবেগ প্রবণ হতে দেখা যায়। সেই আবেগ ঘনো মুহুর্তে সাইদুর রহমানের চোঁখেও আনন্দ অশ্রু লক্ষ করা গেছে।


স্থানীয় একাধিক সুত্রে জানা যায়, মুন্ডুমালা পৌরবাসীর বিভিন্ন সমশ্যায় যখন কাউকে খুঁজেও পাওয়া যায় না সেই সময় নির্বিঘ্নে পৌরবাসীর পাশে সাহায্যে হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন নেতা সাইদুর রহমান। বর্তমানে মহামারী করোনা চলাকালীন সময়ে পৌর এলাকার গরীব, অসহায় ও নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদেরসহ পৌরবাসীর হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন এই ত্যাগিনেতা সাইদুল রহমান। পাশাপাশি ত্যাগী নেতা হওয়ার কারনে তিনি তার নিজের অজান্তেই পৌরসভার তৃনমূল থেকে শুরু করে হাইকমান্ডের কাছেও প্রিয় মানুষ হয়ে উঠছেন।  


এ বিষয়ে সাইদুর রহমান বলেন, আমি সকল প্রকার দলীয় বিভেদকে দু-পায়ে মাড়িয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেখিয়ে দেওয়া পথকে অনুসরণ করে চলেছি। মুন্ডুমালা পৌরসভার সকল ত্যাগী নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত অসহায় ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর কল্যানে কাজ করে চলেছি। বর্তমানেও করে যাচ্ছি আমৃত্যু পর্যন্ত তা করে যাব। আজকে এই নির্বাচনী প্রচারণায় মানুষের মাঝে আমার প্রতি ভালবাসার যে বহির প্রকাশ লক্ষ করেছি তা আমি পূর্বে এতোটা অনুধাবন করিনি, এলাকার মানুষ আমাকে এতোটা ভালোবাসে।


তিনি আরো বলেন, আমি এই নির্বাচনে দাঁড়িয়েছি অবহেলিত মানুষের দুঃখ দুর্দশা লাঘবের জন্য। সর্বপরি মুন্ডুমালা পৌরবাসীর কল্যানে কাজ করার লক্ষ্যেই আমার এই পথচলা। আমি সবার কাছে নেক দোয়া চাই’ সবাইকে সাথে নিয়ে যেন পৌরসভার রাস্তা-ঘাট থেকে শুরু করে যাবতীয় উন্নয়ন মূলক কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে পৌরসভাটিকে মডেল পৌরসভায় রুপান্তরিত করতে পারি। আমি পৌরবাসীর সুখে-দুখে তাদের সাথে ছিলাম আছি এবং থাকব। আমি মুন্ডুমালা পৌর আওয়ামীলীগ ও অংঙ্গ সংগঠনের তৃণমূল পর্যায়ের সকল ত্যাগিনেতা কর্মীদের সুসংগঠিত করে যাচ্ছি, তারা আমার সাথে রয়েছে।
উল্লেখ্য, ইতোমধ্যে দলীয় সুত্রে জানা গেছে, আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের যোগ্য ও ত্যাগী নেতাদের প্রাধান্য দেবে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ। এজন্য কেন্দ্রীয় ভাবে মেয়র মনোনয়ন দিতে চাচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ।