রাজশাহীতে করোনায় ২ হাজার ৭’শ ভিডিপি সদস্য পাচ্ছেন এক সপ্তাহের খাদ্যসামগ্রী

রুহুল আমীন খন্দকার, বিশেষ প্রতিনিধি: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় গ্রামে প্রথম সারির প্রতিরোধ যোদ্ধা হিসেবে পুলিশের পাশাপাশি কাজ করছেন গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর (ভিডিপি) সদস্যরা। অথচ তারাই রয়েছেন চরম মানবিক সঙ্কটে। এমন অসহায় ২৭০০ (দুই হাজার সাতশত) ভিডিপি সদস্যেকে এক সপ্তাহের খাদ্যসামগ্রী দিচ্ছেন আনসার-ভিডিপি।

সোমবার (০৩ মে) ২০২০ ইং থেকে জেলার ৯টি উপজেলার আনসার-ভিডিপি সদস্যদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ শুরু হয়। বেলা ১১টার দিকে পবা উপজেলায় ত্রাণ বিতরণের উদ্বোধন করেন আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী রাজশাহী রেঞ্জের পরিচালক ফখরুল ইসলাম। নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে শৃঙ্খলভাবে দাঁড়িয়ে ত্রাণ গ্রহণ করেন উপজেলার ৩০০ ভিডিপি সদস্য।

সেই সময় প্রত্যেককে পাঁচ কেজি চাল, দুই কেজি আলু, এক কেজি পেঁয়াজ, এক কেজি ডাল, এক লিটার তেল, একটি সাবান ও একটি মাস্ক দেয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে জেলার বাকি আট উপজেলার ভিডিপি সদস্যরা এ সহায়তা পাবে।

ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম তত্ত্বাবধান করেন আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর জেলা কমান্ড্যান্ট জাহিদ হোসেন। এ সময় ৪ আনসার ব্যাটালিয়নের পরিচালক শাহ আহম্মদ ফজলে রাব্বি, জেলার সহকারী কমান্ড্যান্ট রবিউল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা করোনা সঙ্কটের শুরু থেকেই সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছেন। মহামারী করোনা প্রতিরোধে জনসচেতনতা তৈরিতে ২০ হাজার লিফলেট বিতরণ করেছে এই বাহিনীর সদস্যরা। মাস্ক-পিপিই বিতরণ থেকে শুরু করে, ঘরবন্দি মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন ত্রাণ সহায়তা।

পুলিশের পাশাপাশি জনগণের নিরাপদ দূরত্ব নিশ্চিত করতে টহলেও অংশ নিচ্ছেন আনসার সদস্যরা। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত ব্যক্তির দাফনে প্রতি উপজেলায় তাদের ১৪ সদস্যের ১টি করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই মানবিক সঙ্কটে প্রান্তিক পর্যায়ের প্রায় এক লাখ ৪৭ হাজার ৯০০ অসহায় আনসার সদস্যের মাঝে ৭৪০ টন চাল, ৩০০ টন আলু, ১৫০ টন ডাল, ১৫০ টন পেঁয়াজ, দেড় লাখ লিটার তেল, দেড় লাখ পিস সাবান ও দেড় লাখ পিস মাস্ক প্রদান করা হচ্ছে।