রাজশাহীতে চাঁদাবাজি কিংবা হাত পেতে জীবিকা নির্বাহ নয়’ কর্মসংস্থানের সুযোগ চায় তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠী

রুহুল আমীন খন্দকার, বিশেষ প্রতিনিধি: চাঁদাবাজি কিংবা হাত পেতে জীবিকা চালানো নয়, স্থায়ী কর্মসংস্থানের সুযোগ চায় রাজশাহীর তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীরা। বৃহস্পতিবার (২৮শে জানুয়ারী) সকালে রাজশাহী মহানগরীর একটি রেস্তোরাঁয় গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে এক আলোচনা সভায় তারা এসব কথা বলেন। এ জন্য তারা সরকারের সু-দৃষ্টি আকর্ষণও করেছেন।দিনের আলো হিজড়া সংঘ’ এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করেন। সভায় তৃতীয় লিঙ্গের সদস্যরা তাদের নানান অসুবিধার কথা তুলে ধরেন। এর পাশাপাশি তাদের সুবিধা-অসুবিধার কথা সরকারের কাছে তুলে ধরতে গণমাধামের সহযোগিতাও চান তারা। বক্তারা বলেন, তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠীকে বারবার সমাজে অবহেলিত হতে হয়। একমাত্র কর্মসংস্থানের সুযোগ নেই বলেই তাদের চাঁদাবাজি কিংবা বিভিন্ন জায়গা থেকে টাকা নিতে হয়। কিন্তু তারা এটা চান না। বরং তারা শিক্ষা নিয়ে কর্মসংস্থান চান।

বক্তারা আরও বলেন, বিভিন্ন সময়ে তাদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। কিন্তু বেশিরভাগ সময়ই সেগুলো তাদের কাজে লাগে না। তাই এমন প্রশিক্ষণের যেন ব্যবস্থা করা হয় যা তাদের কাজে লাগবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাসিক মেয়র পত্নী ও বিশিষ্ট সমাজসেবী শাহীন আক্তার রেনী। শাহীন আক্তার রেনী তার বক্তব্যে বলেন, রাজশাহীতে প্রতিনিয়ত তৃতীয় লিঙ্গের জনগোষ্ঠী অনেক অসুবিধার কথা শুনতে পাই। তাদের অসুবিধা যেন না হয় সেই জন্য সবাইকেই এগিয়ে আসতে হবে। তাদের আবাসনের ব্যবস্থা যেন দ্রুত হয় সেই ব্যবস্থা করা হবে। তবে তাদের সমস্যার কথা তুলে ধরার উপযুক্ত জায়গা হচ্ছে জাতীয় সংসদ। তাই যদি সংসদ সদস্যরা বারবার তাদের কথা তুলে ধরেন তাহলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হবে।

গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডার অর্থায়নে ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। লিডারশিপ অ্যান্ড এমপাওয়ারমেন্ট অব ট্রান্সজেন্ডার প্রকল্পের কো-অর্ডিনেটর আফসানা তানজুম ইরানি অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। সভাপতিত্ব করেন, দিনের আলো হিজড়া সংঘের সভাপতি মোহনা। উপস্থিত ছিলেন দিনের আলো হিজড়া সংঘের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য হাসান মিল্লাত, শরীফ সুমন’সহ উক্ত সংগঠনের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দরা।