রাজশাহীর বাঘায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ১ গ্রামপুলিশ সদস্য গ্রেফতার

রুহুল আমীন খন্দকার: বিশেষ প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাঘায় গ্রামপুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেছেন এক কলেজছাত্রী। মামলায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ভুয়া বিয়ের মাধ্যমে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। 

বাঘা’র বাজুবাঘা ইউনিয়ন পরিষদে কর্মরত গ্রামপুলিশ সদস্য সোহেলের বাড়ি উপজেলার জোতরাঘব গ্রামে। তার বাবার নাম আমিরুল ইসলাম। সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) মামলা দায়েরের পরে প্রতারক গ্রামপুলিশ সোহেলকে (২৮) গ্রেফতার করেছেন বাঘা থানা পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মাস দুয়েক আগে ওই কলেজ ছাত্রীকে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে সোহেল। পরে ভুয়া কাবিনে বিয়ে করে ওই ছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। এ অবস্থায় মূল পরিচয় গোপন করে র‌্যাবে যাওয়ার কথা বলে কলেজ ছাত্রীর কাছে টাকা দাবি করে সোহেল। সন্দেহের একপর্যায়ে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সোহেল ডিবি পুলিশ নয়, গ্রাম পুলিশের একজন চৌকিদার সে।

এ বিষয়ে বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে সোহেলকে গ্রেফতারের পর মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকালে পুলিশ হেফাজতে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপরদিকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য ওই ছাত্রীকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের (ওসিসিতে) পাঠানো হয়েছে।