রামগঞ্জে ভর্তি ও চাঁদা বন্ধের দাবীতে চালকদের বিক্ষোভ মিছিল

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার সোনাপুর ওয়াপদা মোরগ বাজার-নিছহরা,রাঘাবপুর সড়কে ভর্তিতে ৫হাজার,মাসিক চাঁদা সিএনজি প্রতি সাড়ে ১২শত টাকা পরিহার দাবীতে মঙ্গলবার ওই সড়কে শতাধিক সিএনজি চলাচল বন্ধ করেন মালিক ও শ্রমিক ফেডারেশন।

সৃষ্ট ঘটনা নিরসণে মঙ্গলবার ওই সড়কের শতাধিক সিএনজি চালক সিএনজি নিয়ে পৌর কার্যালয়ে সামনে সারিবদ্ধভাবে অবস্থান করেন।

এ সময়ে সড়কে চাঁদা আদায়, ভর্তিতে ৫হাজার টাকা বন্ধের দাবীও জানান। শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মো: সেলিম,সাধারণ সম্পাদক মমিন হোসেন,কালু মিয়া জানান আমরা পৌরসভার অনুমতি নিয়ে সোনাপুর মোরগ বাজার-থেকে রাঘাবপুর ,নিছহরা গ্রামে সিএনজি চালিয়ে আসছি। পৌরসভাকে ১০টাকা টেস্ক পরিশোধ করে আসছি। লাইন ম্যান মো: শরীফ হোসেন একটি মহলের নাম

ভেঙ্গে প্রতিমাসে সিএনজি প্রতি বাড়তি ১২শত টাকা,ভর্তিতে ৫হাজার টাকা দাবী করেন। পৌরমেয়র জানান স্লিপের মাধ্যমে ১০ টাকার বাহিরে বাড়তি টাকা আদায়ের নিয়ম নেই।

পৌর যুবলীগের যুগ্নআহবায়ক ফয়সাল পাটোয়ারী জানান বাড়তি টাকা আদায় ঘটনা সত্য নহে। সোনাপুর মোরগ বাজার-নিছহরা,রাঘাবপুর সড়কে সিএনজি চলাচল বাড়তি ভাড়া, গাড়ী রাখার নিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা মারধর ঘটনা ঘটে। ওইখানে সোনাপুর-শ্রীরাম পুর পৌরশহর থেকে আমি ইজারা গ্রহন করেছি। লাইনম্যান শরীফ জানান চাঁদা ও ভর্তিতে টাকা আদায় হচ্ছেনা। সড়কে গাড়ী স্টেশন,বাড়তি ভাড়া নিয়ে বিরোধ হচ্ছে।