শ্রীমঙ্গল ২নং ভূনবীর ইউনিয়নের শূণ্য পদে স্বঘোষিত ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা

মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার ২নং ভূনবীর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. চেরাগ আলী চলতি মাসের ৩ তারিখ মারা যান। গত ৫ মে উপজেলা প্রশাসন থেকে চেয়ারম্যান পদটি শূণ্য ঘোষণা করা হয়। কে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন এ নিয়ে চলছে জোড় লবিং।

 এরই মাঝে পরিষদের ৭ নাম্বার ওয়ার্ডের সদস্য নিয়াজ ইকবাল মাসুদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে এবং মানুষের মাঝে তিনি নিজে ঘোষণা দিয়েছেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পেয়েছেন। পাল্টা প্রতিক্রিয়া হিসেবে পরিষদের ১২ জন সদস্যদের মধ্যে নয় জন সদস্য নিয়াজ ইকবাল মাসুদের উপর অনাস্থা জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শ্রীমঙ্গল বরাবরে পরোক্ষ ভোটাভুটির মাধ্যমে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নির্বাচিত করার লিখিত আবেদন জানান । আবেদনে তারা আরও জানান, সংখ্যাগরিষ্ঠদের মতামতের ভিত্তিতে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে এই পদটি নিয়ে কোন বিতর্ক থাকবে না। পরিষদের ১২ জন সদস্যদের মধ্যে নয় জন সদস্যরা হলেন ৬নং ওয়ার্ড সদস্য মো. জালাল মিয়া, ৮নং বদরুল আলম, ৯নং দক্ষিণা বিশ্বাস, ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডের মহিলা সদস্যা মিনারা বেগম, ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা সদস্যা শ্যামলী দাস, ৩নং আব্দুল ওয়াহিদ, ১,২,৩ নং ওয়ার্ডের মহিলা সদস্যা সুকৃতি রাণী সরকার, ২নং সুভাষ লাল রায়, ১নং মো. তাহের মিয়া। 

এ বিষয়ে জানতে  চাইলে স্বঘোষিত ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য নিয়াজ ইকবাল মাসুদকে ফোনে পাওয়া যায়নি। 
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম বলেন, চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দিয়ে কাউকে এখনো প্রজ্ঞাপন জারী করা হয়নি। অফিসিয়ালি এখনও কাউকে দায়িত্ব দেয়া হয়নি। তিনি জানান ভোটাভুটি অথবা প্যানেল চেয়ারম্যান এবং ইউপি সদস্যদের মধ্যেও যে কাউকে দায়িত্ব দেয়া যেতে পারে। প্যানেল চেয়ারম্যান-১ নিয়াজ ইকবাল মাসুদের ওপর ইউপি সদস্যদের অনাস্থার একটি আবেদন পেয়েছি। এ বিষয়ে এখনও করোনায় ব্যস্ততার কারনে দেখার সুযোগ হয়নি।