সবকিছুর অবসান ঘটিয়ে জামিনে মুক্তি পেলেন দিরাইয়ের আ: মালেক!

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সব কিছুর অবসান ঘটিয়ে সকল কুচক্রী মহলের সদস্যদের মুখে চুন-খালী দিয়ে জামিনে মুক্তি পেলেন সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার উত্তর সুরিয়ারপাড় গ্রামের বাসিন্ধা, দারুল ক্বেরাত মজিদিয়া ফুলতলী ট্রাষ্টের উত্তর সুরিয়ারপাড় সতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা সেন্টারের দাতা সদস্য দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের সুরিয়ারপাড় গ্রামের সালিশ ব্যাক্তিত্ব মো. সাহেব আলী’র পুত্র মো. আব্দুল মালেক জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।

সুনামগঞ্জ চীপ জুডিসিয়াল আদালত তাহাকে মুক্তি দেন। জামিনে মুক্তিপ্রাপ্ত আব্দুল মালেক বলেন, ষড়যন্ত্র মূলক একটি কুচক্রী মহল দীর্ঘদিন যাবত আমার পেছনে লেগে রয়েছে। আমার মান-সম্মান নষ্ট করার জন্য তাহারা এই কুকর্ম কান্ড করে আমাকে পুলিশ দিয়ে অযথা গ্রেফতার করিয়েছিল। বিজ্ঞ আইনজীবিদের সহযোগিতায় আমি সেরেস্তা থেকেই মুক্তি পেয়েছি। বড় দুঃখের বিষয় কতিপয় কয়েকটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে আমাকে ডাকাত আখ্যায়িত করে সংবাদ প্রকাশ করেছে।

দিরাই উপজেলার জনপ্রতিনিধি সহ সাধারণ মানুষজন আমাদের পরিবারের সম্পর্কে জানেন, আমি ও আমার পরিবারের লোকজন দীর্ঘদিন যাবত দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের পল্লী অঞ্চলে মানুষের জীবন মান উন্নয়নের জন্য নিস্বার্থ ভাবে কাজ করে আসছি। আমাকে ডাকাত শিরোনামে কতিপয় নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, মানুষ বলতেই ভুল ত্রুটির বিষয় আমি একজন সাধারণ মানুষ। আমার প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে এলাকার কিছু কুচক্রী মহল একের পর এক দিরাই থানাসহ জগন্নাথপুর থানায় প্রতিনিয়ত মিথ্যা মামলা দায়ের করে আসছে। আমি সব ক’টি মামলায় হাজিরা দিয়েছি, এবং তাদের এই মামলা যে মিথ্যা তা আদালতে প্রামানিত ও হয়েছে, আর একটি মামলা রিকল ( কাগজ সংক্রান্ত বিষয়) আদালতে বিলম্বে পাঠানো জন্য গতকাল এই ঘটনাটি ঘটে।

আমি আমার আইনজীবীদের সহযোগিতায় আমার সমগ্র কাগজ পত্রের প্রমাণিত করে মহামান্য আদালত থেকে মুক্তি পেয়েছি। আর আমাকে নিয়ে যেই সব নিউজ পোর্টালে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে আমি প্রশাসন ও এলাকার সর্বস্তরের মানুষের কাছে বিচার কামনা করছি। আর অল্প কিছুদিনের ভিতরেই এই সব পোর্টালের বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নিব।