সাংবাদিকদের উপর হামলা-হয়রানির ঘটনায় রাজশাহী প্রেসক্লাবের মানববন্ধন

0

রুহুল আমীন খন্দকার, বিশেষ প্রতিনিধি : পাপিয়া কান্ডে সংবাদ প্রকাশের জেরে মানবজমিন পত্রিকার প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, প্রতিবেদক আল আমিনের নামে হয়রানিমূলক মামলা, নিখোঁজ ফটোসাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের সন্ধান দাবি ও কুড়িগ্রামে সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগ্যানকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় রাজশাহীতে প্রতিবাদী মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। সাংবাদিক নির্যাতন চলবে না, বন্ধ করো’ স্লোগানকে সামনে রেখে শনিবার ১৪ই মার্চ ২০২০ ইং বেলা ১১টায় নগরীর সাহেব বাজার জিরোপয়েন্ট প্রেসক্লাব চত্বরে মানবজমিনসহ সারাদেশে গণমাধ্যমের উপর হামলা-হয়রানির ঘটনায় রাজশাহী প্রেসক্লাব এই প্রতিবাদ কর্মসূচির আয়োজন করে। এ সময় হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের প্রধানমন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন বক্তারা।

রাজশাহী প্রেসক্লাব সভাপতি সাইদুর রহমানের সভাপতিত্ব এবং সাধারণ সম্পাদক আসলাম-উদ-দৌলার পরিচালনায় মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন- রাজশাহী প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্য কলামিস্ট মুক্তিযোদ্ধা প্রশান্ত কুমার সাহা, মহানগর সেক্টর কমান্ডার ফোরাম সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান আলী বরজাহান, জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদ সহ-সভাপতি জাতীয় পার্টি নেতা সালাউদ্দিন মিন্টু, সিনিয়র সাংবাদিক রাশেদ রিপন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সাংবাদিকরা যখন নিষ্ঠার সাথে লিখছেন সেই মূহূর্তে সাংবাদিকদের উপর যে মিথ্যা মামলা দেয়া হচ্ছে। আজ সত্য কথা বলতে গিয়ে হয়রানির স্বীকার হতে হয়। মানবজমিন পত্রিকার সম্পাদকের উপর যে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে তার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তা প্রত্যাহারের দাবিতে আজকের মানববন্ধন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বলতে চাই, যদি সত্য কথা বলতে গিয়ে আপনার আশেপাশের লোকদের দ্বারা মামলা-হামলার স্বীকার হতে হয়। তবে গেজেট করে সত্য কথা বলা বন্ধ করে দেন। নাহলে সংবাদপত্রের উপর হস্তক্ষেপ-হয়রানি বন্ধে উদ্যোগ গ্রহণ করুন। আপনার উদ্যোগের সুফল জনগণের দৌড়গোড়ার পৌঁছানো ও দুর্নীতির বিরোধী অভিযানের সফলতার স্বার্থেই গণমাধ্যমের শক্তিশালী ভূমিকা দরকার। নাচেৎ কখন এ পাপিয়ারা আপনাকে জেঁকে ধরবে আপনি টেরও পাবেন না।