সৌদিতে নজরুল জলসা’য় সারা রাত সংগীত পরিবেশন করেন প্রবাসী শিল্পীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ‘আসিয়াছি সুন্দর ধরণীতে -সুন্দর যারা তাদেরে দেখিতে’, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের বিখ্যাত গানের এই বাণী সম্পূরক শিরোনাম করে জমজমাট জলসা করেছে সৌদি আরব নজরুল একাডেমি। ২৪ অক্টোবর এই জলসায় রাজধানী রিয়াদের সংখ্যাধিক শিল্পী সংগীত পরিবেশন করেন। এতে আরো ছিল নজরুলের বিখ্যাত কবিতা ‘বিদ্রোহী’র ইংরেজি অনুবাদ ‘দি রেবেল’ অন্যান্য কবিতা এবং উপস্থিত কবিদের সরচিত কবিতা পাঠ।

জলসায় বিশেষ মন্তব্যধর্মী বক্তব্য এবং সরচিত কবিতা পাঠ করেন বাংলাদেশ দূতাবাসের কার্যালয় প্রধান ড. ফরিদউদ্দিন আহমেদ। এসময় তিনি বলেন, ‘দূতীয় কাজে সৌদি আরবে আসার আগে মনে হয়েছিল এখানে প্রবাসীরা হয়তো তেমনভাবে শিল্প-সংস্কৃতিতে সময় দিতে পারেন না কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, দেশের বাইরে পৃথিবীর অনেক দেশে অবস্থানরতদের মাঝে সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশিরা যথেষ্ট সংস্কৃতি সচেতন। তিনি বলেন, দেরি হলেও সৌদি আরবে নজরুল একাডেমি শাখা প্রতিষ্ঠা দেখেই বুঝা যায় এখানে বাঙালিরা মূলধারার সংগীতের প্রতি কতটা নিবেদিত।

এতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন একাডেমির আহবায়ক মো. রফিকুল ইসলাম। তিনি নতুনভাবে শুরু হওয়া এই প্রতিষ্ঠানকে সার্বিক সহযোগিতা দেওয়ার জন্য প্রবাসীদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। তিনি বলেন, নজরুল চর্চার জন্য প্রবাসী প্রজন্মদের উদ্বুদ্ধ করার প্রধান উদ্দেশ্য নিয়ে এই একাডেমি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে যাতে আমাদের সন্তানরা জাতীয় কবির সৃষ্টিসমূহ অনুধাবন করতে বিশেষভাবে আগ্রহী হতে পারে।

স্বাগত বক্তব্যে একাডেমির যুগ্মআহবায়ক মো. জাহাঙ্গীর আলম অতিথিদের শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানান। আগামী দিনে সৌদি আরব নজরুল একাডেমির মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলিতে কর্মকাণ্ড পরিচালনার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।
অনুষ্ঠানটি যৌথভাবে সঞ্চালনা করেন কবি শাহজাহান চঞ্চল ও আমির ফয়সাল।

এতে সংগীতে অংশ নেন নাশরা কিরণ, শাহানা চৌধুরী পপি, ব্রিটেন ইসলাম, তানজিমা বেগম লিমা, প্রাতিস্বিক জেহেন আদৃত, রোদোসী মঞ্জিমা শেমুষী, মো. শাহীনূর, মনির হোসেন, সফিক সিদ্দিকী। কবিতা পাঠ করেন সাইদ আহমেদ, আনিকা নাওয়ার এলি এবং আরো অনেকে।

প্রসঙ্গত, আনিস ফাতেমার ইংরেজি অনুদিত নজরুলের ‘বিদ্রোহী’ কবিতা ‘দি রেবেল’ পরিবেশনায় অংশগ্রহণকারী আনিকা নাওয়ার এলি সৌদি আরব নজরুল একাডেমির জন্য প্রথম নিদর্শন হয়ে থাকবে বলে সংগঠন সংশ্লিষ্টরা মন্তব্য করেন।

জলসার মন্তব্য পর্বে অংশ নেন রিয়াদ আওয়ামী পরিষদের সভাপতি এমআর মাহবুব, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ডা. শাহআলম, যুবলীগের সভাপতি এমএ জলিল রাজা, মুসা বাবু, বাংলাস্কুলের শিক্ষিকা সানজিদা বেগম, রেহানা জাহাঙ্গীর, মিসেস মুসা, মিসেস রোকন, মিসেস করিম সাইফুল ইসলাম এবং আরো অনেকে।

অনুষ্ঠানে রিয়াদে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল ইংরেজি শাখাকে গত ৪ জুলাই একাডেমির উদ্বোধনী দিনে ঘোষিত বিশেষ সম্মাননা ক্রেস্টটি উপহার দেওয়া হয়। দূতাবাসের কার্যালয় প্রধান ড. ফরিদউদ্দিন আহমদকে সঙ্গে নিয়ে একাডেমির আহ্বায়ক মো. রফিকুল ইসলাম, যুগ্মআহবায়ক মো. জাহাঙ্গীর আলম, কবি শাহজাহান চঞ্চল, আমির ফয়সাল পর্ষদ কর্মকর্তা ডা. মনোজ কুমারের হাতে ক্রেস্টটি তুলে দেন।

জলসায় রিয়াদের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পরিবার নিজেদের সন্তানদের নিয়ে উপস্থিত ছিলেন।