স্কুলছাত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ, প্রধান আসামি কারাগারে

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ষষ্ঠ শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে পরিত্যক্ত ঘরে আটকে রেখে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) রাতে নির্যাতিত ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে তিনজনের বিরুদ্ধে এ মামলা করেন।
পরে রাতেই অভিযান চালিয়ে উপজেলার ঝাউডগি গ্রাম থেকে মামলার প্রধান আসামি রাজীব হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এদিকে, সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওই ছাত্রীকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। গ্রেপ্তার রাজীব উপজেলার চর জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়াডের আলমগীর হোসেনের ছেলে। মামলার অন্য আসামিরা হল একই এলাকার রাকিব ও হৃদয়।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার চরবংশীর এসএম আজিজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী মামার বাড়ির যাচ্ছিল। পথিমধ্যে মেঘনা বাজার এলাকা থেকে মামলার আসামি রাজিব, রাকিব ও হৃদয় জোরপূর্বক তাকে তুলে নিয়ে যায়। এসময় পার্শ্ববর্তী চরবংশী গ্রাামের একটি পরিত্যক্ত ঘরে আটকে রেখে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়। পরে অচেতন হয়ে পড়লে হাত-পা বেঁধে ওই ছাত্রীকে রেখে তারা পালিয়ে যায়।

শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে স্থানীয়রা তাকে দেখতে পেয়ে অভিভাবককে খবর দেয়। তারা এসে ছাত্রীকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তোতা মিয়া বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় ছাত্রীর বাবা মামলা করেছে। প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।