হরিপুরে বয়স্কভাতা নিতে আসা বয়স্ক মানুষের দুর্ভোগ, দেখার কেউ নেই

জে.ইতি হরিপুর (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি: বয়স্কভাতা নিতে আসা বয়স্ক মানুষের দুর্ভোগ দেখার কেউ নেই। আমাদের দেশে যে সকল মানুষ বার্ধক্যে উপনীত হয় তাদের আমরা বয়স্ক বা সিনিয়র সিটিজেন বলি পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে সিনিয়র সিটিজেন দের আলাদা সন্মানের চোখে দেখা হয়, তাদের যেকোনো সমস্যার সমাধান অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করে দেওয়া হয়, ব্যাতিক্রম আমাদের বাংলাদেশে, এইখানে বৃদ্ধ হওয়া মানে নির্মম অভিশাপের নাম।

বয়স্ক মানুষের দুর্ভোগ ও কষ্টের কথা বিবেচনা করে বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মমতাময়ী নেত্রী শেখ হাসিনা মহোদয় বয়স্কভাতা চালু করেন, আর সেই বয়স্কভাতা নিয়ে অনেক বৃদ্ধা বৃদ্ধ তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসহ জীবনের অনেক টুকিটাকি সমস্যার সমাধান করেন, কিন্ত সবচেয়ে কষ্টের বিষয় হচ্ছে এই সামান্য বয়স্কভাতা তুলতে গিয়ে এই অসহায় মানুষ গুলোকে কত নির্মমতার শিকার হতে হয় তা নিজ চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা কঠিন।

এই বয়স্ক মানুষগুলো একেতো বেশীরভাগ চলা ফেরায় অক্ষম, অনেকে বেশীরভাগ সময় অসুস্থ থাকেন। তারপরও তাদের বয়স্কভাতা তুলতে তাদের স্বশরীরে ব্যাংকে হাজিরা দিতে হয়, ব্যাংক কর্মকতারা ব্যাংকে আসেন সকাল ১০টায়। আর এই লোকগুলোকে ব্যাংকের বাহিরে খোলা জায়গায় রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে চলে আসতে হয় সকাল আট টায়, যদি একটু বিলম্ব হয় তাহলে সেদিন আর বই জমা নেওয়া হয়না। আর ব্যাংকের ভীরতে তাদের বসার বা দাড়ানোর কোন ব্যবস্থা নেই, রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে এই বয়স্কদের ব্যাংকের বাহিরে খোলা আকাশের নীচে লাইন ধরে দাড়িয়ে থাকতে হয়। ব্যাংকের দারোয়ান থেকে শুরু করে সবাই বেশীরভাগ সময় এই মানুষদের সাথে অসভনীয় আচরণ করে।

ব্যাংকের এসি ও ফ্রেনের ভিতর কর্মরত ব্যাংক্তিদয় আরামে বসে থাকলেও বাহিরে এই মানুষগুলো সারাদিন চাতক পাখির মতো কানখাড়া করে রাখতে হয় কখন ১৫০০,১০০০,১২০০ টাকা দেওয়ার ডাক দিবে নাম ধরে। যদি শুনতে দেরি হয় তাহলে এই টাকা আর সেদিন নিতে ঝামেলা পোহাতে হয় অনেক। তাই তারা খাওয়া দাওয়া বাদদিয়ে তাদের ঠায় অপেক্ষায় থাকতে হয়। এই নিদারুণ দুর্ভোগ।

সরেজমিনে হরিপুর উপজেলার যাদুরাণী বাজার কৃষি ব্যাংক, চৌরঙ্গীবাজার কৃষিব্যাংক ও হরিপুর কালিগঞ্জবাজার কৃষি এবং সোনালী ব্যাংকে ঘুরে এমনি চিত্র পড়ে আমাদের উপজেলা প্রতিনিধি জসিম উদ্দীন ইতি’র চোখে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেখানে বয়স্কদের সন্মান করেন এবং সন্মান দিচ্ছেন সেখানে ব্যাংক কর্মকতাদের অবহেলা আর অসৌজন্যমূলক আচরণের কারনে বয়স্ক অসহায় মানুষগুলোকে নিদারুণ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।