হাজীগঞ্জের কাপাইকাপে গাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্ :    হাজীগঞ্জে শতাধিক ফলন্ত ফলজ ও বনজ গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। রোববার দিবাগত রাতের অঁাধারে উপজেলার দ্বাদশগ্রাম ইউনিয়নের কাপাইকাপ খোদাইবিল মাঠে এই গাছ কাটার ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় অর্ধ-লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক শাহ্ মো. আব্দুল হামিদ খান। তিনি ওই গ্রামের খাঁন বাড়ির মৃত কবির উদ্দিন আহমেদ খাঁনের ছেলে।

    শাহ্ মো. আব্দুল হামিদ খান জানান, ২০১৮ ও ২০১৯ সালে খোদাইবিল মাঠে তার ব্যক্তি মালিকানাধীন পুকুরের চার পাড়ে আম, পেয়ারা, পেঁপে, কাঁঠাল, কলা ও আমড়াসহ বিভিন্ন প্রজাতীর শতাধিক ফলজ ও বনজ গাছ রোপন করেন। চলতি বছরে পেয়ারা, পেঁপে ও কলা গাছে ফলন আসে। রোববার দিবাগত রাতের কোন এক সময়ে কে বা কারা সব ধরনের গাছগুলো কেটে সাবাড় করে দিয়েছে।

    তিনি কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, পেয়ারা, পেঁপে ও কলা গাছে মাত্র ফলন এসেছে। এখনো ফলগুলো অপরিপক্ক অবস্থায়। অন্যান্য গাছগুলো বাড়ন্তের দিকে। অথচ এর মধ্যে সকল গাছের মাঝ বরাবর কেটে দিয়ে সব গাছ নষ্ট করে ফেলেছে। তিনি আরো বলেন, গাছগুলোর অনেক যন্ত করতাম। প্রতিদিন সকাল-বিকাল পরিচর্যার মাধ্যমে গাছগুলোকে বড় করে তুলেছি। তাই খুব কষ্ট লাঘছে। বিষয়টি উপজেলা বন কর্মকর্তাকে জানাবেন বলে তিনি জানান।

হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন রনি বলেন, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত থানায় কেউ কোন অভিযোগ করেনি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ক্যাপশন : হাজীগঞ্জের দ্বাদশগ্রাম ইউনিয়নের কাপাইকাপ গ্রামের খোদাইবিলে এভাবেই শতাধিক ফলন্ত ফলজ ও বনজ গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। -ইল্শেপাড়