হাজীগঞ্জে পিকআপ উল্টে নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু: আহত- ৯

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্: হাজীগঞ্জে পিকআপ (মিনি ট্রাক) উল্টে মো. বাচ্চু মিয়া (৪২) নামের এক নির্মাণ শ্রমিক মারা গেছেন। এ ঘটনায় অপর ৮ শ্রমিক ও এক রিক্সা চালকসহ ৯জন গুরুতর আহত হয়েছেন। বুধবার বিকালে হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ সড়কের রান্ধুনীমুড়া এলাকায় এ দূর্ঘটনা ঘটে। নিহত বাচ্চু মিয়া শাহরাস্তি উপজেলার ইছাপুরা গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে।


আাহত শ্রমিকেরা হলেন, একই গ্রামের আলি আজ্জমের ছেলে কবির হোসেন (২৮) ও মহসিনের ছেলে সাজ্জাদুল ইসলাম (২৩), আলিপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে আমির হোসেন (৩০), দেলোয়ার হোসেনের ছেলে মামুন (৩২), আনোয়ার হোসেনের ছেলে জাকির হোসেন (২৯) এবং হাজীগঞ্জ উপজেলার পৌরসভাধীন রান্ধুনীমুড়া গ্রামের কালা মিয়ার ছেলে সুমন (৩৮)।
অপর আহতরা হলেন, কুমিল্লা জেলার বাউকসার গ্রামের মোস্তফা মিয়ার ছেলে মো. শামিম (৩৫), নারায়নগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও উপজেলার পেরাব গ্রামের শাখাওয়াত হোসেনের ছেলে এনায়েত হোসেন (২৭) এবং আহত রিক্সা চালক হলেন, হাজীগঞ্জ উপজেলার বড়কুল পূর্ব ইউনিয়নের রায়চোঁ গ্রামের মোকসেদুর রহমানের ছেলে মো. হারুন অর রশিদ (৩৫)।


স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এ দিন বিকালে হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ সড়কের রান্ধুনীমুড়া এলাকায় হাজীগঞ্জগামী একটি পিকআপ বেলচোঁ বাজার গামী একটি রিক্সাকে সাইড দিতে গিয়ে উল্টে যায়। এতে পিকআপে থাকা একটি মিক্সার মেশিন ও নির্মাণ শ্রমিকেরা সড়ক থেকে ছিটকে পড়ে। এতে করে নির্মাণ শ্রমিকেরা ও রিক্সা চালক গুরুতর আহত হন।


পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নির্মাণ শ্রমিক বাচ্চু মিয়াকে মৃত ঘোষণা করে। এবং আহতের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদেরকে পরীক্ষা-নিরিক্ষা করার জন্য প্রয়োজনী টেস্ট দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সড়ক থেকে দূর্ঘটনা কবলিত পিকআপ (মিনি ট্রাক) ও রিক্সা সরিয়ে যান চলাচল উন্মুক্ত করে দেন।
নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সুলতান আহমেদ বলেন, বাচ্চু মিয়া নামক একজনকে আমরা মৃত অবস্থায় পেয়েছি। এবং অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি দেয়া হয়েছে।


থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন রনি জানান, সড়ক থেকে দূর্ঘটনা কবলিত পিকআপ ও রিক্সাটি সরিয়ে যান চলাচল উন্মুক্ত করা হয়েছে এবং নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে আসা হয়েছে। তিনি বলেন, পরবর্তীতে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।