হাজীগঞ্জে ভাইরাসে ১৩’শ মুরগীর মৃত্যু, ৮ লাখ টাকার ক্ষতি

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্: হাজীগঞ্জে একটি লেয়ার মুরগী খামারে (ডিম পাড়া মুরগী) ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত এক সপ্তাহে ১৩’শ মুরগীর মারা গেছে। উপজেলার গন্ধর্ব্যপুর ইউনিয়নে আহাম্মদপুর গ্রামের ভাই ভাই খামারে এ ঘটনা ঘটে।

এতে প্রায় ৮ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্ত খামারী আলী হোসেন। তিনি উপজেলার গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়নের আহাম্মদপুর গ্রামের ভূঁইয়া বাড়ির মৃত শামসুল হকের ছেলে। আলী হোসেন জানান, যুব উন্নয়ন থেকে প্রশিক্ষন নিয়ে লেয়ার মুরগীর খামারের ব্যবসা শুরু করেন। এতে ১৫ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে। কিন্তু ভাইরাস আক্রমনে গত এক সপ্তাহে ১৩’শ মুরগী মারা যায়। এতে প্রায় ৮ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে এবং মৃত মুরগীগুলোকে মাটি চাপা দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, খামারে এখনো প্রায় এক হাজার মুরগী রয়েছে। এ বিষয়ে কুমিল্লার একজন নামকরা চিকিৎকের পরামর্শ নিয়ে তার প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী চিকিৎসা চলছে। কান্নাজড়িত কন্ঠে আলী হোসেন আরো বলেন, নিজের কিছু সঞ্চয়, প্রিজম ও দিশা এনজিও থেকে প্রায় ৬ লাখ টাকা এবং ধার-দেনাসহ ১৫ লাখ টাকা ব্যয় করেছি। এখন আমার ব্যবসাটা শেষ হওয়ার পথে। জানিনা কি করে, এ ঋণ এবং ধার- দেনার টাকা পরিশোধ করবো।

খামারের শ্রমিক আব্দুর রশিদ ও সীরুতা বলেন, ‘আমাদের চোখের সামনে এতোগুলো মুরগী মারা গেছে। খুব কষ্ট পেয়েছি। আমরা মরা মুরগীগুলো বস্তায় ভরে মাটির নিচে চাপা দিয়েছি। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, আলী হোসেন মুরগীর খামার করে স্বাবলম্বী হওয়ার চেষ্টা করছে। কিন্তু মুরগীগুলো মরে তার বড় ধরনের ক্ষতি হয়ে গেল।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. জুলফিকার আলীর মুঠোফোনে যোগাযোাগ করে, সংযোগ না পাওয়ায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।