হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মশক নিধন উপকরণ বিতরণ

মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্: হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন সকল পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মশক নিধন উপকরণ (এরোসল স্প্রে, মশারী ও সচেতনতামূলক লিপলেট) বিতরণ করলেন, পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপন। সোমবার দুপুরে তিনি পৌরসভাধীন ৩০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (স্কুল, কলেজ ও মাদরাসা) এ মশক নিধন উপকরণ ও সচেতনতামূলক লিপলেট বিতরণ করেন।

মেয়র আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপন দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে এ পর্যন্ত পৌরসভাধীন এলাকায় ৩৯ বার মশন নিধন স্প্রে কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন। এ ছাড়াও সকল ধর্মের ধর্মীয় উৎসবগুলোতে (ঈদ, পূজা) মসজিদ, মন্দির এমনকি বড় ধরনের মাহফিলসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালনের স্থানে মেয়র নিজ উদ্যোগী হয়ে মশক নিধন স্প্রে করে থাকেন।

তারই ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে এবং শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে সচেতনতার লক্ষ্যে এ দিন দুপুরে পৌরসভা কার্যালয়ে পৌরসভাধীন সকল শিক্ষা প্রতিষ্টানে মশক নিধন উপকরণ বিতরণ করা হয়। এ সময় পৌরসভার ডাস্টবিন অথবা নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা-আবর্জনা রাখার অনুরোধ জানিয়ে মেয়র আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপন বলেন, ডেঙ্গু রোগসহ সকল রোগ প্রতিরোধে সচেতনতার বিকল্প নেই।

প্রতিষ্ঠান প্রধানদের প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্টানগুলোতে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার লক্ষ্যে নিয়মিত পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা এবং শিক্ষার্থীদের সচেতনতার লক্ষ্যে পড়ালেখার পাশাপাশি নিয়মিত বিভিন্ন রোগ এবং সামাজিক অপরাধ প্রতিরোধ আলোচনা করতে হবে।

এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মো. মাসুদ আহাম্মদ, বলাখাল মকবুল আহমেদ ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. আবুল কালাম, হাজীগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ। মশক নিধন উপকরণ বিতরণকালে পৌরসভাধীন সকল কলেজ, স্কুল, মাদরাসা ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ও প্রধান শিক্ষকসহ দুজন শিক্ষক ও প্রতিষ্ঠান প্রতি দুজন করে শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ডেঙ্গু রোগ প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে পৌরসভাধীন এলাকায় মশার উৎপত্তিস্থল ধ্বংস, জমে থাকা পানি অপসারণ, মশক নিধনকারী ঔষধ ছিটানো হয়। এছাড়াও পৌরবাসীর মাঝে সচেতনতামূলক লিফলেট, এরোসল স্প্রে ও মশারী বিতরণ এবং বিভিন্ন শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে সচেতনতামূলক দিক-নির্দেশনাসহ ডেঙ্গ প্রতিরোধে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করে আসছে হাজীগঞ্জ পৌরসভা।