হাসনাত আবদুল্লাহ এর অনশন ভাঙালেন উপাচার্য।

https://www.bdcurrentnews24.com/wp-content/uploads/2022/07/ad-1.jpg

ঢাবি প্রতিনিধি।। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ভবনের জটিলতা ও শিক্ষার্থী হয়রানি বন্ধসহ ৮ দফা দাবিতে আমরণ অনশনে বসা ইংরেজি বিভাগের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহর অনশন ভাঙালেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।
বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টা ১০ মিনিটের দিকে প্রায় ২৭ ঘণ্টা পর পানি খাইয়ে অনশন ভাঙান উপাচার্য।এসময় তার দাবিগুলো মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেন আখতারুজ্জামান। 
উপাচার্য বলেন, আমি ঘোষণা দিচ্ছি, এই মুহূর্ত থেকে কোনো শিক্ষার্থীকে দাপ্তরিক কাজের জন্য আর রেজিস্ট্রার বিল্ডিংয়ে যেতে হবে না। সব কাজ হল এবং বিভাগে সম্পন্ন হবে। সেখানে আমাদের লোকবল দেওয়া আছে এবং প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হবে।
তিনি আরো বলেন, আমাদের কোনো শিক্ষার্থী যেন রেজিস্ট্রার বিল্ডিংয়ে এসে মূল্যবান সময় নষ্ট না করে। সে সময়টিতে তারা যেন পড়াশোনা করে, সেমিনার রুমে আড্ডা দেয় এবং লাইব্রেরিতে যায়। কোনো কাজেই তারা রেজিস্ট্রার বিল্ডিংয়ে আসবে না। সব কাজ হল এবং লাইব্রেরিতে সম্পাদন হবে। সেখানে কেউ হয়রানি হলে প্রভোস্ট এবং চেয়ারম্যানের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক ভূইয়া, প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী, সহকারী প্রক্টর ও বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 
এদিকে অনশন ভাঙানোর পর হাসনাত আব্দুল্লাহকে অ্যাম্বুলেন্সে করে তার সহপাঠীরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এর আগে গত ৩০ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন দপ্তরের প্রশাসনিক জটিলতা নিরসনে আট দফা দাবিতে প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেন তিনি। সে সময় তিনি উপাচার্যকে স্মারকলিপি এবং দাবি পূরণে ১০ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন। পরে দাবি পূরণ না হওয়ায় ফের গত ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন তিনি। ১৯ সেপ্টেম্বর গণস্বাক্ষর কর্মসূচি এবং রেজিস্ট্রার ভবন নিয়ে অভিযোগ বক্সে শিক্ষার্থীদের ‘অভিযোগ’ নেন। উপাচার্যের কাছে গণস্বাক্ষর ও অভিযোগগুলো নিয়ে গেলে কোনো আশ্বাস না পেয়ে আমরণ অনশনের সিদ্ধান্ত নেন হাসনাত। 

https://www.bdcurrentnews24.com/wp-content/uploads/2022/07/ad-1.jpg