অফিসে কাজে মন বসাতে যা করবেন ?

0
341
অফিসে কাজে মন বসাতে যা করবেন ?

অনলাই ডেস্ক: অফিসে প্রতিদিনের কাজ ঠিকমতো শেষ করা অন্যতম লক্ষ্য থাকে। কিন্তু এমন দিন আসে যখন সবচেয়ে করিতকর্মা কর্মীরও কাজ করতে মন চায় না। অনুৎপাদনশীল দু-একটা দিন যেতেই পারে। কিন্তু এমনটা হতে থাকলে আপনি পিছিয়ে পড়বেন। অনেক সময় মন-মেজাজ কোনো কারণ ছাড়াই বিগড়ে থাকে। সহকর্মীর সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়ে পড়া কিংবা সহজ কাজটাকে জটিল করে তোলা ইত্যাদি ঘটে। আসলে মানসিক চাপের কারণে এমনটা হয়। এ ধরনের নেতিবাচক মানসিক অবস্থা থেকে মুক্তি পাওয়ার পদ্ধতি জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা

হেঁটে আসুন: অতি সাধারণ মনে হলেও দারুণ এক উপায়। বেশির ভাগ সময়ই সবুজ পরিবেশ, মুক্ত বাতাস আর বিশুদ্ধ অক্সিজেন নিমেষেই আপনাকে সতেজ করে তুলবে। সামান্য হাঁটাহাঁটিতে মানুষের মাঝে উৎপাদনশীল শক্তি চলে আসে। মন-মেজাজ ভালো হয়ে যায়। এর সঙ্গে পাশের কোনো কফি শপে বসে হালকা স্ন্যাকস আর কফিও উপভোগ করতে পারেন। এতে চাঙ্গা লাগবে। দেখবেন আগের চেয়ে অনেক ভালো লাগছে এবং কাজ করতে মন চাইছে।

অবস্থান পরিবর্তন: এমনটা হয় যে দীর্ঘদিন ধরে এক টেবিলে বসতে বসতে আর ভালো লাগে না। সুযোগ থাকলে সবারই বসার অবস্থান এদিক-সেদিক করা দরকার। এতে অনেক কিছুই বদলে যাবে। সৃষ্টিশীলতা গড়ে তোলার ক্ষেত্রেও অবস্থান বদলের কথা বলেন মনোবিজ্ঞানীরা। কর্তৃপক্ষ কিংবা বিভাগীয় প্রধান অথবা সহকর্মীর সঙ্গে আলাপ করে বসার জায়গা পরিবর্তন করে নিন।

গান শুনুন: এ কথা সর্বজন স্বীকৃত যে সংগীত মানুষের মানসিকতা মুহূর্তেই ভালো করে দেয়। কাজেই অফিসের টেবিলে মন না বসলে নিজেকে পাঁচ-সাত মিনিটের বিরতি দিন। দুই কানে হেডফোন লাগিয়ে পছন্দের দুটো গান শুনুন। সঙ্গে সঙ্গে প্রফুল্ল হয়ে উঠবে মন। শরীরটাও সতেজ লাগবে। এবার কাজ শুরু করুন। পার্থক্যটা নিজেই বুঝবেন।

কথা বলুন: কোনো পছন্দের মানুষের সঙ্গে কথা বলতে পারেন। পাশের সহকর্মীর সঙ্গে কিছু সময়ের জন্য আলাপচারিতায় মেতে উঠতে পারেন। গত ছুটিতে কী কী করলেন সে বিষয়ে কথা বললেও কাজের প্রতি জড়তা কেটে যাবে। কিংবা ভালো লাগা অন্যান্য বিষয়েও কথা বলুন। ফোনেও এ কাজটি করতে পারেন। কাজের প্রতি ইচ্ছা ও ভালোবাসা ফিরে আসবে।

বিরত

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপানার নাম লিখুন