কোচিং বানিজ্যের অপকর্ম ঢাকতে কৌশলে শিক্ষার্থীদের থেকে স্বাক্ষর, অতঃপর..

0
76

বিশেষ প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে মাধ্যমিক স্কুল রয়েছে ৩০টিও দাখিল মাদ্রাসা রয়েছে ২১ টি। পবিত্র রমজান মাসে সরকারি ভাবে স্কুল বন্ধ থাকার কথা কিন্তু রায়পুরে কে শুনে কার কথা ৫১টি প্রতিষ্ঠানে প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে ১ টা পযন্ত চলছে কোচিং নামে বানিজ্য। এক মাসের জন্য কোচিং করালে প্রতিটি ছাত্রকে দিতে হবে ৫০০/৬০০টাকা তাও আবার বিনা রশীদে।

টাকা নেওয়ার কোন প্রমান রাখেনা স্কুলের শিক্ষকেরা। ক্লাসে না গেলে টাকা না দিলে ছাত্রছাত্রীদের মানুষিকভাবে যন্তনা দেওয়ার অভিযোগ উঠে,কখন কখনও সকল ছাত্রছাত্রীর সামনে ক্লাশ বাহির হরে দেওয়া হয়। সরকারের আইন অমান্য করে তারা এমন কাজ করছে কিভাবে জনতার প্রশ্ন থেকেই গেল।

রায়পুর মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একটি সুত্রে জানা গেছে, ৫০ জন অভিবাবকদের অনুরোধে স্কুলে প্রতিষ্ঠানের ভালো ফলাফলের স্বার্থে কোচিং করানো যাবে, তবে কোন ধরনের অর্থ নেওয়া যাবেনা। সরেজমিনে গেলে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের অভিবাবক ও ছাত্ররা এমন তথ্য জানিয়েছেন। তবে কয়েকজন শিক্ষক জানান যে, পরিচালা পর্ষদের সিদান্ত মোতাবেক ও বন্ধ সময় কষ্ট করে পড়াই কিছুতো নেওয়া লাগে।

বিরত

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপানার নাম লিখুন