সুনামগঞ্জে পানিবন্দী একলাখ চারহাজার মানুষ

0
77


নাইম তালুকদার,  সুনামগঞ্জ: টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় সুনামগঞ্জের সদর, বিশ্বম্ভরপুর, তাহিরপুর, দোয়ারাবাজার, ছাতক, জামালগঞ্জ,দক্ষিণ সুনামগঞ্জ,দিরাই শাল্লা ও ধর্মপাশা উপজেলার বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। সুরমা নদীর পানি প্রবেশ করেছে জেলা শহরের কয়েকটি এলাকায়। পাঠদান বন্ধ রয়েছে তিন শতাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে।সরকারি হিসেবে বন্যায় জেলার ৫২টি ইউনিয়নে ১ লাখ ৪ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। 

রোববার দুপুর ১২টা পর্যন্ত সুনামগঞ্জ শহরের ষোলঘর পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ৭৮ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টায় ৭৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। তবে বৃষ্টিপাত বন্ধ হলে পানি কমবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।  রাস্তাঘাট ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় আছে অনেক এলাকা। সুনামগঞ্জ-তাহিরপুর  ও সুনামগঞ্জ-ছাতক সড়কের কয়েটি স্থান পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় সরাসরি যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে বিপাকে পড়েছেন যাত্রীরা। বন্যার কারণে দুর্ভোগে পড়েছেন শ্রমজীবী, শিক্ষাথীসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ। 

ভক্সপপ: ৩টি জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বন্যা দুর্গত মানুষের মাঝে  ২৪৮ মেট্রিকট চাল, নগদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা, ৩ হাজার ৭৬৫ প্যাকেট শুকনা খাবার বিতরণ করা হয়েছে।  সেইসাথে আরো ৫০০ মেট্রিকটন চাল, নগদ ১০ লাখ ৫০ হাজার টাকার এবং ৫ হাজার ২৩৫ প্যাকেট শুকনা খাবার মজুদ রয়েছে জেলা প্রশাসনের কাছে।

বিরত

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপানার নাম লিখুন